সর্বশেষ
রবিবার ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

করণের বিরুদ্ধে অজয়ের অভিযোগ

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৬

1854858341_1472989669.jpg
বিনোদন ডেস্ক :
আসছে দিওয়ালিতে একসাথে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে এই দুই তারকার দুই বিগ বাজেটের ছবি। আজয় দেবগনের ড্রিম প্রজেক্ট ‘শিভায়ে’ ও করণ জোহারের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’।

ট্রেইলারে ইতোমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে ঐশ্বরিয়া, রণবীর ও আনুশকা শর্মা অভিনীত ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিটি। অন্যদিকে অজয় অভিনীত ‘শিভায়ে’ ছবিটিকেও মনে করা হচ্ছে দিওয়ালির আরেকটি বড় ছবি হিসেবেই।

অজয় বলছেন, ‘শিভায়ে’র ব্যবসাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে এখন উঠে পড়ে লেগেছেন করণ।

সম্প্রতি ইউটিউবে একটি অডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন আজয় দেবগন। ৩ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের ওই অডিওতে রয়েছে ‘অ্যায় দিল হে মুশকিল’ ছবির প্রযোজক কুমার মাঙ্গাত ও চলচ্চিত্র সমালোচক কামাল রাশিদ খানের কথপোকথন। এতে শোনা যায়, ‘শিভায়ে’ ছবির নেতিবাচক প্রচারণা চালানোর জন্য কামাল রাশিদ খানকে ২৫ লাখ রূপি ঘুষ দিতে চেয়েছেন প্রযোজক কুমার মাঙ্গাত। অভিযোগটিকে মিথ্যা বলে দাবি করে অজয়ের বিরুদ্ধে পাল্টা টাকা সাধার অভিযোগ করেছেন কামাল রাশিদ খান।

এক টুইটবার্তায় তিনি বলেছেন, আজয় দেবগন ও কুমার মাঙ্গাত দু’জনেই আমাকে তাদের ছবির প্রচারণার জন্য টাকা সেধেছেন। অজয় যে অডিও টেপটি ছেড়েছেন, তার বাকি অংশেই এটি আছে। কিন্তু আমি কারও কাছ থেকেই টাকা নেইনি। আমি টাকা নিয়ে কারো জন্য কিছু করি না।

কামাল রাশিদ খানের এই অভিযোগকে পুরোপুরি ভিত্তিহীন ও মিথ্যা বলে দাবি করেছেন অজয় দেবগন। ক্ষুব্ধ হয়ে তাই ঘটনাটির যথাযথ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে এক টুইটার বার্তায় ‘শিভায়ে’ ছবির ব্যবসায়িক সাফল্য নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন চলচ্চিত্র সমালোচক কামাল রাশিদ খান। আর তাতেই চটেছেন অজয়।

এক টুইটবার্তায় অজয় বলেন, বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আমার বহুদিন হলো। আমার বাবাও এই ইন্ডাস্ট্রিতে বহুদিন কাজ করেছেন। কিন্তু এটি এমন একটি ঘটনা, যাতে মনে হচ্ছে আমরা নিজেরাই নিজেদের পায়ে কুড়াল মারছি৷

টুইট পোস্টটিতে ‘অ্যাই দিল হে মুশকিল’ ছবির পরিচালক করণ জোহারের উদ্দেশে আজয় আরো বলেন, এ ঘটনার দায় করণও এড়াতে পারে না। আমি করণকে বলবো সে যেন একটু নজরে নেয় বিষয়টিকে।

অজয়ের বক্তব্যে বিস্মিত হয়েছেন করণ জোহার। তিনি বলেন, অজয়ের মতো একজন নামকরা অভিনেতা কেন কামাল রাশিদ খানের মতো ধূর্ত লোকের কথা বিশ্বাস করছেন? অজয় একজন রাষ্ট্রীয় পদক পাওয়া অভিনেতা আর কামাল রাশিদ খান একজন সামান্য ফেসবুক সেলিব্রেটি। এদের মতো লোকরা জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য সবই করতে পারে। আমার বিরুদ্ধে এমন নোংরা অভিযোগ তোলার আগে অজয়ের ভেবে দেখা উচিত ছিলো, এ কাজ আমার দ্বারা সম্ভব কি না।

ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // এই লেখাটি ২০৯৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন