সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৫ নভেম্বর ২০১৮

নায়ক জসিমকে মনে পড়ে

শনিবার, অক্টোবর ৮, ২০১৬

336307725_1475912441.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বাংলা চলচ্চিত্রের সুদিন ছিলো আশি-নব্বইয়ের দশকে। সে সময়ে বাংলা চলচ্চিত্রাঙ্গনে একচেটিয়া জনপ্রিয়তা আদায় করে নিয়েছিলেন অভিনেতা জসিম। অ্যাকশন আর রোমান্টিক অভিনয় দিয়ে খুব দ্রুত জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠেছিলেন তিনি।

আজ শনিবার বাংলাদেশের এই অভিনেতার ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৮ সালের ৮ অক্টোবর না ফেরার দেশে চলে যান ঢাকাই ছবির এই অ্যাকশন তারকা। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে মৃত্যু হয় তার।

জসিম ছিলেন একাধারে অভিনেতা, প্রযোজক ও ফাইট ডিরেক্টর। তার প্রকৃত নাম আবদুল খায়ের জসিম উদ্দিন। ঢাকার কেরানিগঞ্জের বক্সনগর গ্রামে তিনি জন্মেছিলেন ১৯৫০ সালের ১৪ আগস্ট। লেখাপড়া করেন বিএ পর্যন্ত।

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়েছিলেন জসিম। দুই নম্বর সেক্টরে মেজর হায়দারের নেতৃত্বে রণাঙ্গনে অংশ নেন তিনি। ১৯৭৩ থেকে তার অভিনয় জীবন শুরু হয়েছিলো।

চলচ্চিত্রে জসিমের আগমন হয় খলনায়ক হিসেবে। সময়ের পরিক্রমায় নিজেকে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়কদের কাতারে পৌঁছে যান তিনি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত বড়পর্দায় দেখা গেছে তার দাপুটে পদচারণা। ঢাকার ছবিতে তিনিই নতুন ধারার মারামারির প্রচলন ঘটান।

দেওয়ান নজরুল পরিচালিত 'দোস্ত দুশমন' ছবির মাধ্যমে রূপালি পর্দায় জসিমের অভিষেক হয়। এটি ছিলো হিন্দি 'শোলে' ছবির রিমেক। এতে তিনি গাব্বার সিং চরিত্রে কাজ করে ব্যাপক আলোচিত হন। এরপর ঢালিউডে খলনায়ক হিসেবে দীর্ঘদিন একক রাজত্ব করেন তিনি।

বেশ কয়েক বছর পর দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর পরিচালনায় ‘সবুজ সাথী’ ছবিতে প্রথমবার নায়ক হিসেবে হাজির হন জসিম। এটি জনপ্রিয় হওয়ায় আর খলনায়ক হননি তিনি। বরং শোষিত, নিপীড়িত ও বঞ্চিত মানুষের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন পর্দায়। আশি ও নব্বই দশকের প্রায় সব জনপ্রিয় নায়িকার বিপরীতেই দেখা গেছে তাকে। এর মধ্যে শাবানা ও রোজিনার সঙ্গে তার জুটিই সবচেয়ে বেশি দর্শকপ্রিয়তা পায়।

ঢাকা, শনিবার, অক্টোবর ৮, ২০১৬ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ২৪৬৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন