সর্বশেষ
বুধবার ৩০শে কার্তিক ১৪২৫ | ১৪ নভেম্বর ২০১৮

চায়ের সঙ্গে মুচমুচে কিমা কচুরি

সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০১৭

1383839873_1487572380.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বিকেলে চায়ের সঙ্গে মুচমুচে ভাজা কচুরি বেশ সুস্বাদু স্ন্যাকস। নিরামিষ কচুরি যেমন লোভনীয়, মাছ, মাংস বা কিমা কচুরিও তেমনই টেস্টি। আর কচুরি তৈরির রেসিপি জানা থাকলে তো কথাই নেই, বাসায় যখন তখন তৈরি করতে পারবেন।

উপকরণ :

ক্রাস্টের জন্য :-

ময়দা: ২ কাপ
বেকিং সোডা: ১ চা চামচ
জোয়ান: ১/৪ চা চামচ
নুন: আধ চা চামচ
ভেজিটেবল অয়েল: ৫-৬ টেবল চামচ

পুরের জন্য :-
সিদ্ধ কিমা: ১ কাপ
পেঁয়াজ: ১টা বড় (কুচনো)
আদা: ১ চা চামচ (গ্রেট করা)
রসুন বাটা: ১ চা চামচ
গুঁড়ো লঙ্কা: আধ চা চামচ
কাঁচা লঙ্কা: ২-৩টে (চেরা)
গরম মশলা গুঁড়ো: ১ চা চামচ
লেবুর রস: ১ চা চামচ
ধনেপাতা কুচি: ১/৪ কাপ এবং স্বাদ মতো লবণ।
ভাজার জন্য তেল পরিমাণ মতো নিতে হবে।

কীভাবে বানাবেন :
ময়দা, নুন, সোডা একসঙ্গে মিশিয়ে মাঝখানে গর্ত করুন। পরিমাণ মতো জল দিয়ে নরম করে মেখে নিন। ভেজা তোয়ালে দিয়ে ময়দা মাখা জড়িয়ে রাখুন ২০-৩০ মিনিট। সিদ্ধ কিমা থেকে জল ঝরিয়ে নিন।

ফ্রাই প্যানে তেল গরম করে আদা থেঁতো ও রসুন বাটা দিয়ে দিন। এক মিনিট নেড়ে নিয়ে পেঁয়াজ কুচি দিন। কয়েক মিনিট ভেজে কিমা দিয়ে দিন। এরপরে লঙ্কা গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো দিয়ে ২ মিনিট রান্না করুন। কিছুক্ষণ পর রং বদলে আসতে থাকবে। আঁচ থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। লেবুর রস ও ধনেপাতা কুচি মিশিয়ে নিন।

ময়দা মাখা ছোটো ছোটো ভাগে ভাগ করে নিন। ছোট ছোট লেচি কেটে লুচির আকারে বেলে নিন। দু'চামচ কিমার পুর দিয়ে ধার মুড়ে নিন। হাতের চাপে চ্যাপ্টা করে নিন।

একদম কম আঁচে ডুবো তেলে ভালো মুচমুচে করে ভেজে তুলুন। একটি সুন্দর প্লেটে টিস্যু রেখে তার ওপরে রেখে দিন। কারণ টিস্যুতে অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়। গরম গরম তেঁতুলের চাটনি, ধনেপাতার চাটনি বা টোম্যাটো কেচাপ দিয়ে পরিবেশন করুন।


ঢাকা, সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ২০৩২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন