সর্বশেষ
শুক্রবার ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৬ নভেম্বর ২০১৮

সানস্ক্রিন ব্যবহারে সাধারণ কিছুু ভুল

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৬, ২০১৭

1617496592_1491464130.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা সব ঋতুতেই সানব্লক বা সানস্ক্রিন ব্যবহার করা জরুরি। এখন যেহেতু সূর্যের তাপ অনেক প্রখর তাই এর প্রয়োজনীয়তা একটু বেশি। প্রখর সূর্যালোক আমাদের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। সূর্যের রশ্মিতে রয়েছে ইউভি-এ, ইউভি-বি, ইউভি-সি। ইউভি-এ ও ইউভি-বি ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে এবং ত্বকের নানা ধরনের ক্ষতি করে। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি ত্বকের কোষ, কোলাজেন, লেসিথিন ফাইবার ক্ষতিগ্রস্থ করে, ত্বকে বলিরেখা সৃষ্টি করে, ফ্রিকেলুস ও তীল তৈরি করে, এমনকি ত্বকে ক্যান্সারও হতে পারে।

কিন্তু আমরা সবাই সানস্ক্রিন ব্যবহারের সময় কিছু সাধারণ ভুল করেই থাকি। মনে রাখবেন, এটা শুধু শরীরে ব্যবহারের কোনো সাধারণ ক্রিম নয়। এর অনেক কার্যক্ষমতা রয়েছে, যা ত্বকের সুস্থতায় খুবই প্রয়োজন।

সঠিক এসপিএফ
যে সানস্ক্রিনে যত বেশি এসপিএফ থাকে, তাতে তত বেশি প্রটেকশন থাকে। কম এসপিএফ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন আপনার ত্বককে সারা দিন রক্ষা করতে পারবে না। তাই সঠিক এসপিএফ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

পুরো শরীরে সানস্ক্রিন
আমরা শুধু সেই জায়গাগুলোতেই সানস্ক্রিন ব্যবহার করি, যেখানে পোশাক থাকে না। এ কারণে ওই জায়গাগুলোতে কালচে ভাব থাকে, যা পুরো শরীর থেকে আলাদা মনে হয়। তাই বাইরে যাওয়ার আগে পুরো শরীরে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

কখন লাগাবেন
আমরা অনেকেই জানি না, কখন সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হয়। সব সময় বাইরে বের হওয়ার আধা ঘণ্টা আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এতে ত্বকের সঙ্গে মানিয়ে যাবে ভালো। না হলে সূর্যের আলোতে বের হওয়ার পর সানস্ক্রিন ব্যবহারে কোনো লাভ নেই।

অতিরিক্ত ঘামানো
যদি আপনার অতিরিক্ত ঘামের সমস্যা থাকে, তাহলে অবশ্যই ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এমনকি যদি সাগরের পানিতে নামতে চান অথবা সুইমিংপুলে গোসল করতে চান, তাহলেও ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। না হলে পানি এবং ঘামের সঙ্গে সানস্ক্রিন উঠে যাবে।

মেকআপের ওপর নির্ভরতা
ময়েশ্চারাইজার বা ফাউন্ডেশনে থাকা সান প্রটেকশন ফ্যাক্টর (এসপিএস) সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনি রশ্মির প্রভাব থেকে রক্ষা করতে পারে না। তাই মেকআপের ওপর সানস্ক্রিন লোশন ব্যবহার করা উচিত। এতে আপনার ত্বক ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে।    

মেঘাচ্ছন্ন দিনে
অনেকেই রোদ না থাকলে অথবা আকাশে মেঘ থাকলে সানস্ক্রিন ব্যবহার করে না। মনে করে, এখন তো রোদ নেই, তাই সানস্ক্রিন ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। কিন্তু এ সময়েই ত্বকের অনেক বেশি ক্ষতি হয়। কারণ, ক্ষতিটা সূর্যের তাপের কারণে হয় না, ইউভি রশ্মির কারণে হয়। তাই মেঘাচ্ছন্ন দিনেও সানস্ক্রিন লাগাতে ভুলবেন না।

পুরাতন সানস্ক্রিন
অনেকেই আছেন যারা সানস্ক্রিন লোশন নিয়মিত ব্যবহার করেন না। ফলে দেখা যায়, বছর ঘুরে নতুন বছর চলে এলেও আগের কেনা সানস্ক্রিন লোশন থেকে যায়। পুরাতন সানক্রিন লোশন ব্যবহার করার আগে মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ ভালোভাবে দেখে নিন। আর সানস্ক্রিন লোশনটা যদি কোনো গরম জায়গা রাখা হয়ে থাকে তাহলে এই সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন না। এতে ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি হওয়ার আশংকা রয়েছে।

লিপ বাম
পুরো শরীরের সানস্ক্রিন ব্যবহার করলেন অথচ ঠোঁটে ব্যবহার করলেন না। এতে ঠোঁট কালো হওয়ার আশঙ্কা থাকবে। তাই এমন লিপ বাম ব্যবহার করুন, যাতে সানস্ক্রিন প্রটেকশন থাকে।

মুখের জন্য ভিন্ন সানস্ক্রিন
মুখের জন্য আলাদা সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এমন কোনো সানস্ক্রিন মুখে ব্যবহার করবেন না, যা শরীরের জন্য উপযোগী। কারণ, মুখের ত্বক শরীরের ত্বকের চেয়ে অনেক বেশি স্পর্শকাতর হয়ে থাকে। তাই মুখের জন্য আলাদা সানস্ক্রিন এবং শরীরের জন্য আলাদা সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৬, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // টি এ এই লেখাটি ২০৫১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন