সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কানাডায় নতুন মাইলফলকে বিসিসিবি

মঙ্গলবার, জুন ২৭, ২০১৭

1446144273_1498561109.jpg
প্রবাসী ডেস্ক :
অদম্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশি কানাডিয়ানদের সংগঠন বিসিসিবি। ত্যাগ ও নিষ্ঠার উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠা এই সংগঠনে সদস্য সংখ্যা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। সংযোজিত হচ্ছে নতুন নতুন চ্যাপ্টার, পোর্টফোলিও, নতুন নতুন ইভেন্ট। সেই সঙ্গে স্পর্শ করে চলেছে নতুন মাইলক। ঈদের ছুটিতে এরকমই একটি মাইলফলকে পৌছলো বিসিসিবি। অনেকটা নীরবেই প্রবেশ করলো ১৫ হাজারি ক্লাবে।

গত ডিসেম্বরে সদস্য সংখ্যা ছিলো ১০ হাজার। ছয় মাসে সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে দেড় গুণ হয়েছে। অবশ্য সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধির চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন সাধিত হয়েছে সাংগঠনিক উৎকর্ষতা ও কার্যক্রমে।

কানাডার অভ্যন্তরে বসবাসরত বাংলাদেশিদেরকে ফেসবুকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিয়ে করে যাত্রা শুরু করেছিল বিসিসিবি। তারপর একে একে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে অনেকগুলি চ্যাপ্টার, পোর্টফোলিও, বিষয় ভিত্তিক ইন্টারেস্ট গ্রুপ সহ আরো অনেক কিছু। স্বতন্ত্রভাবে নিজেদের পরিসীমায় কাজ করে যাচ্ছে মন্ট্রিয়েল, সাসকেচুয়ান, অটোয়া এবং বাংলাদেশ চ্যাপ্টার।

সময়ের পরিক্রমায় কানাডার বাইরেও বিস্তৃত হয়েছে বিসিবির কার্যক্রম। কানাডায় লেখাপড়া, ভ্রমণ কিংবা ইমিগ্রেশনে আগ্রহীদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতার জন্য "BCCB for all Bangladeshis" নামে ফেসবুকে একটি নতুন গ্রুপ তৈরী করে BCCB'র সেবার পরিধি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

গর্ব করার মত আছে আরও অনেক কিছু। একটি বিষয় না বললেই নয়, আর তা হচ্ছে কানাডার মূলধারায় বাংলাদেশিদের উপস্থিতি তথা ভয়েস নিশ্চিত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে বিসিসিবি। এরই অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে মূলধারার রাজনীতিবিদদের সাথে যোগাযোগ এবং বিসিসিবি’র ফেইসবুক গ্রুপে তাদের অন্তর্ভুক্তি, পুলিশ বিভাগের সাথে ইন্টারেকশন সহ অনেক প্রচেষ্টা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

সম্প্রতি ক্ষমতাসীন দলের ফেডারেল এমপি নাথায়েল এর্সকিন-স্মিথ ও বিল ব্লেয়ার এবং অন্টারিওর অফিসিয়াল বিরোধী দল প্রগ্রেসিভ কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান প্যাট্রিক ব্রাউন ও এমপিপি সিলভিয়া জোন্স এবং লিবারেল পার্টির এমপিপি আর্থার পোট্সের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন BCCB’s প্রতিনিধি দল।

প্যাট্রিক এবং সিলভিয়া বিসিসিবি’র বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নিয়মিতভাবে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন। শুধু প্রভাবশালী রাজনৈতিক নয়, কানাডা সরকারের অঙ্গ প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথেও পার্টনারশিপ গড়ে তোলার চেষ্টা করে যাচ্ছে বিসিসি। ইতোমধ্যে কানাডার অন্যতম নিরাপত্তা বাহিনী টরন্টো পুলিশের সাথে দেখা করেছে বিসিসিবি লীডারশীপের একটি প্রতিনিধি দল। এর আগে এপ্রিলের শুরুতে বাংলাদেশ সফররত কানাডা পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশীপ গ্রুপের প্রতিনিধিদের সাথে সৌজন্যে সাক্ষাৎ করে বিসিসিবি’র বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের একটি প্রতিনিধি দল।

'জার্নি অব হোপ' স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করা বিসিসিবি এখন আর শুধু স্বপ্নই দেখাচ্ছে না, স্বপ্নকে দ্রুতই নিয়ে যাচ্ছে বাস্তবতার একেবারে কাছাকাছি।

শিহাব উদ্দিন
কো অর্ডিনেটর, প্রবাসী ডেস্ক।

ঢাকা, মঙ্গলবার, জুন ২৭, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // আর কে এই লেখাটি ৬১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন