সর্বশেষ
সোমবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৯ নভেম্বর ২০১৮

অস্ট্রেলিয়া কাউন্সিল নির্বাচনে প্রার্থী হলেন শাহে জামান

রবিবার, আগস্ট ১৩, ২০১৭

65003734_1502599871.jpg
প্রবাসী ডেস্ক :
বাংলাদেশি অধ্যুষিত ক্যান্টারবেরি-ব্যাংকসটাউন কাউন্সিল নির্বাচনে রোজল্যান্ড ওয়ার্ডে থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন কমিউনিটির প্রিয় মুখ শাহে জামান টিটু। শহরের বাসিন্দাদের একটি বড় অংশই মুসলিম সম্প্রদায়ের।

আগামী ৯ সেপ্টেম্বরের নির্বাচন উপলক্ষে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাওয়ার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তাকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানাচ্ছেন তার অনুসারীরা ।

শাহে জামান টিটু কয়েকজন শুভানুধ্যায়ী, নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে প্রত্যেক বাংলাদেশি-অস্ট্রেলিয়ানকে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার অনুরোধসহ কাউন্সিলার পদে তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার কথা বলেন।

আসন্ন নির্বাচনে শাহে জামান টিটুকে ক্যান্টারবেরি ব্যাংকসটাউন কাউন্সিলের কাউন্সিলার পদে নির্বাচিত করে বাংলাদেশি কমিউনিটির অধিকার আদায়ের পথ সুদৃঢ় করার আহ্বান জানিয়ে তারা বলেন, সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে এই গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে টিটুর পাশে দাঁড়ালে তার বিজয় সুনিশ্চিত।

তারা আরো বলেন, শাহে জামান টিটুর জন্যে বাংলাদেশি-অস্ট্রেলিয়ান ছাড়াও সকল ভোটারের কাছে ভোট চাইতে হবে। এই কাজে নতুন প্রজন্মকেও কাজে লাগাতে হবে।

সিডনির বাংলা টাউন নামে খ্যাত রেলওয়ে প্যারেড দিয়ে পথ চলতেই চোখে পড়বে একজন কর্মব্যস্ত ব্যবসায়ীকে। যিনি সময়ের সঙ্গে ছুটে চলেছেন, বিভিন্ন শুভানুধ্যায়ীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন, আবার নিজের ব্যবসায় মনোনিবেশ করছেন দায়িত্বের সঙ্গে। সিডনিতে যেকোনো অনুষ্ঠানে আয়োজকদের কাছে পৃষ্ঠপোষক হিসেবে যার নামটি বারবার উচ্চারিত হয় তিনি হলেন মোহাম্মদ শাহে জামান টিটু।

অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের সিডনি- শহরের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহরতলিতে অবস্থিত ক্যান্টারবেরি ব্যাংকসটাউন কাউন্সিল। রাজ্য সরকার কর্তৃক একটি পর্যালোচনা পরে গত ২০১৬ সালের ১২মে  ক্যান্টারবেরি ব্যাংকসটাউন কাউন্সিলদের একত্রিত করে। এই সিটি কাউন্সিল আয়তন ২৭ বর্গ কিলোমিটার। ২০১৬ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী জনসংখ্যা ৩ লাখ ৫০ হাজার ৯৮৩ জন ।

এই  শহরে কয়েক হাজার বাংলাদেশি বসবাস করলেও এখন পর্যন্ত একজনও সিটি কাউন্সিল কিংবা অঙ্গরাজ্য পার্লামেন্টে বা ফেডারেল পার্লামেন্টে জয়ী হতে পারেননি। আসন্ন ক্যান্টারবেরি ব্যাংকসটাউন কাউন্সিল নির্বাচনে শাহে জামান টিটুর জয়লাভের মধ্য দিয়ে সেই বন্ধ্যাত্বের অবসান হবে বলে অনেক প্রবাসী আশা প্রকাশ করেছেন।

সিডনি থেকে,
মোহাম্মদ জুমান হোসেন

ঢাকা, রবিবার, আগস্ট ১৩, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৬৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন