সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ২২ নভেম্বর ২০১৮

বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপন্যাস 'আলালের ঘরের দুলাল'

বুধবার, আগস্ট ১৬, ২০১৭

1777965548_1502866948.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপন্যাস 'আলালের ঘরের দুলাল'র লেখক প্রখ্যাত ঔপন্যাসিক প্যারীচাঁদ মিত্র। তার ছদ্মনাম 'টেকচাঁদ ঠাকুর'।

কাহিনী সংক্ষেপ:
'আলালের ঘরের দুলাল' উপন্যাসটি সম্পূর্ণ সামাজিক পটভূমিকায় রচিত। আবাল্য অতি আদরের ধনীর পুত্র মতিলাল কখনও ধর্ম ও নীতির শিক্ষা পায়নি, উপরন্ত অসৎ সঙ্গে সে অবনতির শেষ ধাপে এসে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে মতিলালেরই অনুজ রামলাল আদর্শ চরিত্র।

বরদাবাবুর একান্ত স্নেহছায়ায় বড় হয়ে সে তার সকল নির্দেশ মান্য করে সর্বজনের প্রশংসা অর্জন করেছে। মতিলালের চৈতন্যেদয় এবং আদর্শ জীবনের প্রতি আকর্ষণে সমাপ্তি।

গ্রন্থের এই দুই প্রধান ঘটনাস্রোত বিচিত্র খণ্ড ক্ষুদ্র ঘটনায় পল্লবিত হয়ে প্রবাহিত হয়েছে। মূল ঘটনা অপেক্ষা এ বিচিত্র খণ্ড ক্ষুদ্র পল্লবিত ঘটনাই গ্রন্থটির আশ্চর্য সফলতার কারণ। বস্তুতঃ বরদাবাবুর মত মূর্তিমান নীতিপাঠ, বেনী বাবুর মত সজ্জন অথবা আদর্শ যুবক রামলাল এরা কেউই আলালের মত মূল আকর্ষণীয় নয়।

এদের মধ্যে সুশিক্ষা থাকতে পারে কিন্তু উপন্যাসের যা প্রধানতম উপকরণ জীবনের স্পর্শ স্বাদ, তা এই চরিত্রগুলোতে কোথাও নেই। আলালের অবিস্মরণীয় সাফল্য এনে দিয়েছে মতিলাল স্বয়ং এবং তার সাঙ্গপাঙ্গ হলধর গদাধর ইত্যাদি। ধরিবাজ বাহোরাম, শিক্ষক বক্রেশ্বর বাবু ও সর্বোপরি একটি অপরূপ সৃষ্টি ঠকচাচা।

'আলালের ঘরের দুলাল' প্যারীচাঁদ মিত্রকে দান করেছে অমরতা ও বাংলা সাহিত্যকে দিয়েছে এক যুগান্তকারী স্বর্ণ শিখরের সার্থক রূপায়ন।

ঢাকা, বুধবার, আগস্ট ১৬, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৫৪৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন