সর্বশেষ
সোমবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৯ নভেম্বর ২০১৮

বিভাগীয় সেরা নোয়াখালীর ধর্মপুর প্রা: বিদ্যালয়

শুক্রবার, অক্টোবর ৬, ২০১৭

1722060498_1507285891.jpg
নোয়াখালী প্রতিনিধি :
নোয়াখালী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের হাজিরহাট বাজার সংলগ্ন চরসল্যা ধর্মপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ২০১৭ সালের চট্রগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়েছে।

জেলাব্যাপি এ স্কুলের রয়েছে নানান সুনাম ও খ্যাতি। বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী হাজি মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সার্বিক সহায়তায় এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৪ সালে। এ স্কুলে অধ্যবসায় করে সে সময়ের ছাত্র-ছাত্রীরা আজ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সুনামের সাথে চাকুরীসহ সরকারের উচ্চপদস্থ দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বর্তমানে সুদক্ষ শিক্ষক, শিক্ষিকার অক্লান্ত পরিশ্রমে স্কুলের ক্যারিকুলাম পরিবর্তন হয়ে আজ এটি একটি আদর্শ স্কুল। দেশ ব্যাপি স্কুলটি সুনাম অর্জন করে বিভাগীয় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে।

প্রধান শিক্ষিকার নেতৃত্বে ৭ জন দক্ষ নারী শিক্ষিকা ও ৩ জন দক্ষ পুরুষ শিক্ষক মিলে ১০ জনের সুদক্ষ শিক্ষক দলের পরিচালনায় ৫১৯ জন কোমলমতি শিক্ষার্থী এখানে পাঠদানে অংশ নেয়। প্রধান শিক্ষিকা রাবেয়া খাতুন তার আন্তরিকতা, মেধা, প্রজ্ঞা আর দুরদর্শিতা দিয়ে সম্পুর্ণ নতুন ক্যারিকুলাম ও ডিজিটাল প্রদ্ধতিতে স্কুলকে সুন্দর রুপে সাজিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠ দান করান। যা জেলা ও দেশব্যাপী প্রশংসা কুড়িয়েছে।

স্কুলে ঢুকতে চোখে পড়ে সবুজ মাঠ, টবে সাজানো রয়েছে নানা রকমের ফুল আর সবুজ গাছপালা। শিক্ষার্থীদের স্কুলের প্রতি আগ্রহ আর মনোযোগ বাড়াতে নেয়া হয়েছে নতুন কৌশল। সাজানো হয়েছে সততা ষ্টোর। যেখানে দোকানী ছাড়া নির্দিষ্ট মুল্যে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রয়োজনীয় খাতা, কলম, পেন্সিলসহ সরঞ্জামাদি টাকা রেখে কিনে নেবেন। এছাড়া আছে বিজ্ঞানাগার। যেখানে রয়েছে বিজ্ঞানের নানান পরিচিতি। আছে মহানুভবতার দেয়াল। যেখান থেকে গরীব ছেলে মেয়েরা বিনামুল্যে জামা কাপড় নিতে পারে। এছাড়াও রয়েছে সিটিং এরেজমেন্ট। যাতে করে প্রতিটি শিক্ষার্থী সারিবদ্ধ ভাবে সামনের থেকে পড়াশোনায় মনোযোগী হবে। রয়েছে মিড ডে মিল। ছেলেমেয়েরা বাড়ি থেকে খাবার নিয়ে এসে সারিবদ্ধভাবে একসাথে খাবার খায়। আছে প্রতিটি শ্রেণীকক্ষের নেম প্লেট যেখানে রয়েছে সার্জেন জহিরুল হক নামে হল, শেখ রাসেল কক্ষ, ভাষা শহিদ আবদুস সালাম কক্ষ, জহির রায়হান কক্ষ, লেখক মুনীর চৌধুরী কক্ষ।

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রাবেয়া খাতুন বলেন, বিদ্যালয়টি বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ হওয়ায় বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মহল গর্বিত এবং খুশি। আমরা স্কুলের এ সম্মান অক্ষুন্ন রাখতে সচেষ্ট থাকবো। চেষ্টা করবো এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে। আজকের এ স্বীকৃতি আগামীতে আমাদের আরো ভালো কিছু করতে প্রেরণা যোগাবে।

নোয়াখালী সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ জসিম উদ্দিন শেখ জানান, স্কুলটি শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক বিদ্যালয় পুরস্কার পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছে এতে আমরাও খুশি। এটি সারা বাংলাদেশের একটি আদর্শ মডেল বিদ্যালয়ের দৃষ্টান্ত বলে আমি মনে করি। আগামীতে এর উজ্জ্বল ভবিষৎ কামনা করছি।

ঢাকা, শুক্রবার, অক্টোবর ৬, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // ই নি এই লেখাটি ১৪২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন