সর্বশেষ
রবিবার ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দুপুরে ঘুম ঘুম ভাব দূর করবেন যেভাবে

মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৭

2117317637_1508218554.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
সকালে ঘুম থেকে উঠে সতেজ থাকে মন। এরপর শুরু সারা দিনের কাজ আর বেলা বাড়ার সাথে সাথে যেন হারাতে থাকে শরীরের সতেজতা। অবশেষে সতেজতা পুরোপুরি ফুরিয়ে ক্লান্ত শরীরে ঘুম ঘুম ভাব ধরে দুপুরের খাবার খাওয়ার পর। অফিসে দুপুরের এই ঘুমের ভাব দূর করতে কফি পান করেন অনেকেই। তবে কফি ছাড়াও অসময়ের এই ঘুম থেকে মুক্তি পাবার উপায় আছে। ঘুম দূর করতে আসুন জেনে নেই সেই উপায়গুলো :

গান শোনা :
মাইন্ডল্যাব ইন্টারন্যাশনালের চেয়ারম্যান এবং নিউরোসাইকোলজিস্ট ডা. ডেভিড লিউইস পরিচালিত একটি গবেষণা মতে, মনোযোগ এবং উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে গান শুনা। তাই ক্লান্তি দূর করতে গান শুনতে পারেন। যেসব গান আপনাকে উদ্দীপ্ত করে এমন গান শুনুন। দ্রুত লয়ের গান এ ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর। হয়তো এমন ধরনের গান শুনতে ভালো লাগবে না অনেকের। কিন্তু দ্রুত লয়ের গান রক্ত সঞ্চালনের গতি বাড়িয়ে দেয়।

সূর্যের আলোয় হাঁটুন :
লাঞ্চ আওয়ারে সামান্য সময় সূর্যের আলোয় হেঁটে আসুন। সূর্যের আলো শরীরকে উদ্দীপিত করতে পারে, সঙ্গে আপনার মেজাজ, সতর্কতা ও বিপাকের উপর সরাসরি ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করতে পারে।

লাল রঙের দিকে তাকান :
বিশ্বাস করুন আর নাই করুন লাল রঙের দিকে তাকালে ফোকাস ও সতর্কতা উদ্দীপ্ত হয়। ব্রিটিশ কলোম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের করা এক গবেষণায় জানা যায় যে, স্মৃতি পুনরুদ্ধার এবং প্রুফরিডিং -এর মত বিস্তারিত কাজের দক্ষতাকে উদ্দীপ্ত করতে সাহায্য করে লাল রঙ।

ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা :
আপনার মুখ ও চোখে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিন। ক্লান্ত চোখকে জাগিয়ে তোলার সহজ উপায় হচ্ছে এটি। ত্বকের ছিদ্রগুলোকেও বন্ধ হতে সাহায্য করে এই অভ্যাসটি। অফিসে ঘুম ঘুম ভাব দূর করার জন্য ১ মিনিট ধরে চোখে মুখে পানির ঝাপটা দিতে থাকুন, দেখবেন ঘুম চলে যাবে।

সিঁড়ি দিয়ে হাঁটুন :
অফিসে যখনই ঘুম ঘুম ভাব অনুভব করবেন তখনই সিঁড়িতে গিয়ে হেঁটে আসবেন কিছুক্ষণ। ফিজিওলজি অ্যান্ড বিহেভিয়ার নামক জার্নালে প্রকাশিত সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে জানা যায়, সিঁড়ি দিয়ে ১০ মিনিট ওঠানামা করলে ৫০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন গ্রহণ করার মতোই কর্মশক্তি পাওয়া যায়।

সাইট্রাসের ঘ্রাণ :
মনোযোগের মাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে সাইট্রাস ফল। জাপানের কিছু কিছু অফিসে কমলার ঘ্রাণের এয়ার ফ্রেসনার ব্যবহার করা হয় কর্মীদের সতেজ ও ফোকাস থাকার জন্য।

হালকা ব্যায়াম :
শরীরে ক্লান্তি ভর করলে ব্যায়াম করতে ভালো নাও লাগতে পারে। তবে কিছুটা অনুশীলন করতে পারলে স্বস্তিবোধ হবে। মূল কথা হলো, দেহের রক্তসঞ্চালন বাড়াতে হবে।

ঢাকা, মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ২১৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন