সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেই, ধ্বংসের মুখে 'তাড়াশ শিশুপার্ক'

রবিবার, অক্টোবর ২২, ২০১৭

1903710617_1508664163.jpg
সোহেল রানা সোহাগ, সিরাজগঞ্জ থেকে :
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে লক্ষাধিক শিশুর আনন্দ বিনোদনের জন্য নির্মিত একমাত্র শিশুপার্কটি এখন ধ্বংসের মুখে। বিনোদন নামক মৌলিক চাহিদা মেটানোর সুযোগ থেকে বঞ্চিত উপজেলার সকল শিশু।

সংস্কার উদ্যোগের অভাব, সঠিক পরিচর্যা ও রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় পার্কটি আজ ধ্বংসের মুখে পড়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ৩ বছর পূর্বে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরীফ রায়হান কবির ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক ৪ একর জায়গার উপর পার্কটি গড়ে তোলেন। মরহুম সংসদ সদস্য গাজী ইসহাক হোসেন তালুকদার ২০১৪ সালের ২৯ জুলাই শিশুপার্কটির উদ্বোধন করেন।

প্যাডেল চালিত আনন্দতরী, নাগরদোলা, স্লিপ বোর্ড, দোলনা, ব্যাল্যান্স বোর্ড ইত্যাদি আনন্দ বিনোদনের উপকরণ দিয়ে এটি শিশুদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। সে সময় এলাকার বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রতিদিন শতশত শিশু ভিড় জমাতে থাকে এখানে। তাড়াশ শিশুপার্কটি পরিণত হয় শিশুদের মিলন মেলায়। কিন্তু বর্তমানে শিশুপার্কটি ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে।

পার্কের নিকটতম প্রতিবেশী ভাদাশ গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তি নুরুল ইসলাম বলেন, পার্কের প্রবেশের রাস্তাটি ভেঙ্গে যাওয়ায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। উধাও হয়েছে পার্কের অন্যতম আকর্ষণ আনন্দতরী। নাগরদোলা, স্লিপবোর্ড, ব্যাল্যান্স বোর্ডের খুঁটিগুলো নড়বরে হয়ে ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সারা পার্ক জুড়ে গজিয়েছে আগাছা। শিশুদের উপস্থিতিও পূর্বের তুলনায় এখন অনেক কম। উপজেলা প্রশাসনের সুদৃষ্টির অভাবেই এলাকার লক্ষাধিক শিশুর চিত্ত বিনোদনের একমাত্র পার্কটি এখন ধ্বংসের মুখে পড়েছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হকের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, 'শিশু-পার্কটি বর্তমানে খারাপ অবস্থায় আছে। তবে আমি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বরাদ্দ পেলেই পার্কটি সংস্কার করে শিশুদের আনন্দ বিনোদনের উপযোগী করা হবে।'

ঢাকা, রবিবার, অক্টোবর ২২, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ১০২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন