সর্বশেষ
বুধবার ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ২১ নভেম্বর ২০১৮

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে আটক ৬

শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭

1763095560_1511615665.jpg
বরিশাল ব্যুরো :
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) বিজ্ঞান বিভাগের প্রশ্নপত্র ফাঁস করে ডিভাইসের মাধ্যমে উত্তর সরবরাহকালে ছয়জনকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। আটককৃতদের মধ্যে একজন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ও তিনজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র রয়েছেন। আজ শনিবার দুপুর সোয়া ২টায় বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলা হয়।

ব্রিফিংয়ে পুলিশ কমিশনার এস এম রুহুল আমিন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এস আই আশিস পালের নেতৃত্বে একটি টিম সকালে বরিশালের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের আর্শেদ আলী কন্ট্রাক্টর গলির 'নাহার ম্যানসনে' অভিযান চালায়। ওই বাসা থেকে প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের সদস্য মুয়ীদুরসহ ৬ জনকে আটক করে ডিবি। যাদের কাছ থেকে অভিযানের সময় পাঁচটি ইলেট্রো ম্যাগনেটিক ব্লুটুথ ইন্ডাক্সন (ইয়ার-ফোন), পাঁচটি এটিএম কার্ড সদৃশ ইলেকট্রনিক ডিভাইস, প্রশ্নপত্র ফাঁসের কাজের ব্যবহৃত ১১টি মোবাইল সিম এবং দু'টি অতিরিক্ত সিম পাওয়া যায়।

পুলিশ কমিশনার আরো জানান, উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এটিএম কার্ড সদৃশ ইলেকট্রনিক ডিভাইসে সিম ব্যবহার করে সূক্ষ্ম ইয়ারফোনের মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে উত্তরপত্র তৈরিতে সহায়তা করতো ওই চক্র। যে চক্রটি এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের 'ক' ইউনিটের প্রশ্নপত্র ফাঁসসহ সারাদেশে এ ধরনের কার্য পরিচালনা করে আসছিলো।

আটককৃতদের মধ্যে মো. মারুফ হোসাইন মারুফ সিআইডির ওয়ান্টেড তালিকাভুক্ত প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের এক সদস্য।

এ বিষয়ে এস আই বলেন, পরীক্ষার আগ মুহূর্তে আটকের কারণে চক্রের উদ্দেশ্য হাসিল হয়নি। তবে এদের কাছ থেকে লাখ টাকার বিনিময়ে তিনজনে প্রশ্ন কিনতেও চেয়েছিলো। এদের সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তাদের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। যদি বিশ্ববিদ্যালয়েরও কেউ থাকে তবে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

আটককৃতরা হলেন, ববির সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মুয়ীদুর রহমান বাকী (২২)। তিনি পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের বিবির হাওলা গ্রামের গাজী হাফিজুর রহমানের ছেলে এবং বরিশালের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের আর্শেদ আলী কন্ট্রাক্টর গলির নাহার ম্যানসনের ভাড়াটিয়া।

ঢাবির ভূ-তত্ত্ব বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মারুফ হোসাইন মারুফ (২২)। তিনি যশোর জেলার বাঘারপাড়া থানাধীন নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়নের বলরামপুর ইউনিয়নের মুরাদ মোল্লার ছেলে ও অমর একুশে হলের শহীদ বরকত ভবনের ৪০১ নম্বর কক্ষের বাসিন্দা। মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আলমগীর হোসেন শাহিন (২৪)। তিনি পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলার লেবুখালি ইউনিয়নের কার্তিকপাশা গ্রামের মৃত আব্দুর কাদের হাওলাদারের ছেলে ও অমর একুশে হলের শহীদ বরকত ভবনের ৩০১ নম্বর কক্ষের বাসিন্দা এবং গণিত বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মাহামুদুল হাসান আবিদ (২৩)। তিনি পটুয়াখালীর গলাচিপা পৌরসভার কলেজপাড়ার জাহিদুল ইসলামের ছেলে ও অমর একুশে হলের শহীদ রফিক ভবনের বাসিন্দা।

গলাচিপা ডিগ্রি কলেজের মানবিক শাখার তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সাব্বির আহম্মেদ প্রিতম (২৩)। তিনি গলাচিপা সদর উপজেলার পানপট্টি এলাকার জাফর আহমেদের ছেলে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধীনে মোহাম্মদপুর ডিগ্রি কলেজের বিবিএ তৃতীয় বর্ষের ছাত্র রাকিব আকন (২১)। তিনি দুমকী সদর উপজেলার লেবুখালীর আবুয়াল হোসেনের ছেলে।

এদিকে আটককৃত আলমগীর হোসেন শাহিন নিজেকে ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে দাবি করলেও পুলিশ এর সত্যতা এখনো পায়নি।

ঢাকা, শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // ম এইচ ন এই লেখাটি ১২৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন