সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন শুরু

সোমবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৭

amader-shomoy.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

আজ থেকে শুরু হয়েছে বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবের অনলাইন নিবন্ধন। রেজিস্ট্রেশনের কোটা পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অনলাইনে নিবন্ধন প্রক্রিয়া চালু থাকবে।

গতকাল রবিবার দিবাগত রাত ১২টা থেকেই শুরু হয়ে গেছে ষষ্ঠ আসরের এ রেজিস্ট্রেশন।

আগামী ২৬ থেকে ৩০ ডিসেম্বর এই পাঁচ দিন চলবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় উচ্চাঙ্গ সংগীতের আসর বসবে ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত এ উৎসব চলবে। এবারের উৎসবটি উৎসর্গ করা হয়েছে শিক্ষাবিদ এমিরেটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানকে।

পাঁচ দিনব্যাপী উচ্চাঙ্গ সংগীত উৎসবে উপমহাদেশের স্বনামধন্য সঙ্গীত গুরুরা অংশ নেবেন। এবারই প্রথমবারের মতো এ উৎসবে উপমহাদেশের শাস্ত্রীয় সংগীতের পাশাপাশি পাশ্চাত্যের শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের মেলবন্ধন ঘটানো হবে।

পাঁচ দিনব্যাপী উচ্চাঙ্গ সংগীত আয়োজন সূচি:

প্রথম দিন: মঙ্গলবার ২৬ ডিসেম্বর থাকবেন, ড. এল সুব্রহ্মণ্যন এবং আসতানা সিম্ফনি ফিলহারমোনিক অর্কেস্ট্রা, সরোদ-বাদন রাজরূপা চৌধুরী, খেয়াল পরিবেশন বিদুষী পদ্মা তালওয়ালকর, সেতার-বাদন ফিরোজ খান, খেয়াল পরিবেশন সুপ্রিয়া দাস, বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়, বাঁশি-বাদন রাকেশ চৌরাসিয়া এবং সেতার-বাদন পূর্বায়ন চ্যাটার্জি।

দ্বিতীয় দিন: বুধবার ২৭ ডিসেম্বর থাকবেন, কত্থক পরিবেশন অদিতি মঙ্গলদাস ড্যান্স কোম্পানি, তবলা-বাদন বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়, সন্তুর-বাদন পণ্ডিত শিবকুমার শর্মা, খেয়াল পরিবেশন পণ্ডিত উল্লাস কশলকর, সেতার-বাদন ওস্তাদ শাহিদ পারভেজ খান, ধ্রুপদ পরিবেশন অভিজিত কুণ্ড, বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়, বাঁশি-বাদন পণ্ডিত রনু মজুমদার এবং সরোদ-বাদন পণ্ডিত দেবজ্যোতি বোস।

তৃতীয় দিন: বৃহস্পতিবার ২৮ ডিসেম্বর থাকবেন, সেতার-বাদন বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়, ঘাটম ও কঞ্জিরা বাদন বিদ্বান ভিক্ষু বিনায়ক রাম ও সেলভাগণেশ বিনায়ক রাম, খেয়াল পরিবেশন সরকারি সংগীত কলেজ, সরোদ-বাদন আবির হোসেন, বাঁশি-বাদন গাজী আবদুল হাকিম, ধ্রপদ পরিবেশন পণ্ডিত উদয় ভাওয়ালকর, বেহালা-বাদন বিদুষী কালা রামনাথ, খেয়াল পরিবেশন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী।

চতুর্থ দিন: শুক্রবার ২৯ ডিসেম্বর থাকবেন, মনিপুরি, ভরতনাট্যম এবং কত্থক নৃত্য পরিবেশন সুইটি দাস, অমিত চৌধুরী, স্নাতা শাহরিন, সুদেষ্ণা স্বয়মপ্রভা, মেহরাজ হক এবং জুয়াইরিয়াহ মৌলি, সরোদ-বাদন বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়, খেয়াল পরিবেশন ওস্তাদ রাশিদ খান, সরোদ-বাদন পণ্ডিত তেজেন্দ্রনারায়ণ মজুমদার এবং বেহালা-বাদন ড. মাইশুর মঞ্জুনাথ, খেয়াল পরিবেশন পণ্ডিত যশরাজ, চেলো-বাদন সাসকিয়া রাও দ্য-হাস, সেতার-বাদন পণ্ডিত বুদ্ধাদিত্য মুখার্জি।

পঞ্চম দিন: শনিবার ৩০ ডিসেম্বর আলো ছড়াতে থাকবেন, ওড়িশি নৃত্য পরিবেশন বিদুষী সুজাতা মহাপাত্র, মোহন বীণা-বাদন পণ্ডিত বিশ্বমোহন ভট্ট, খেয়াল পরিবেশন ব্রজেশ্বর মুখার্জি, সেতার-বাদন পণ্ডিত কুশল দাস ও কল্যাণজিত দাস, সেতার-বাদন পণ্ডিত কৈবল্যকুমার, বাঁশি-বাদন পণ্ডিত হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়া।

উৎসবের নিয়মকানুন:

বেঙ্গল উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত উৎসব ২০১৭-এ প্রবেশ করতে কোনো টিকিট লাগবে না। অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করলেই তিনি পাঁচদিন এ উৎসবে যোগ দিতে পারবেন। তবে নিবন্ধন ছাড়া উৎসবে প্রবেশ করা যাবে না। প্রতিদিন রাত ১২টায় গেট বন্ধ হয়ে যাবে; মাঠে ব্যাগ নিয়ে ঢোকা যাবে না ও মাঠে ব্যাগ রাখার কোনো ব্যবস্থা থাকবে না; প্রবেশের জন্য সঙ্গে কোনো প্রকার শনাক্তকরণ পরিচয়পত্র রাখতে হবে; মাঠে একাধিকবার প্রবেশ ও প্রস্থান করা যাবে না; বারো বছরের কম বয়সী শিশুদের সঙ্গে আনা যাবে না এবং মাঠে গাড়ি পার্কিংয়ের কোনো ব্যবস্থা থাকছে না।

বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসবের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন-


ঢাকা, সোমবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৪৮০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন