সর্বশেষ
শনিবার ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৭ নভেম্বর ২০১৮

কোনটা বেশি উপকারী চিনি না গুড়?

রবিবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭

C9mklLHW0AATBeT_5.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চিনি না গুড়— কোনটির পুষ্টিগুণ বেশি তা নিয়ে বিতর্ক চিরকালের। শীতের ব্রেকফাস্টে রুটি চিনি দিয়ে খাবেন নাকি নলেন গুড়ে ডুবিয়ে খাবেন, সেটা ঠিক করবেন খাদ্যরসিক ব্যক্তি।

তবে সব কিছুতে যাদের চিনি চাই-ই-চাই, তাদের অন্তত কিছুটা সতর্ক থাকতে হবে— এমনই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, চিনির চেয়ে গুড়ের গুণই বেশি। সাধারণত গুড়ের চেয়ে চিনিই বেশি সমাদৃত। চিনি তৈরি হয় আখের রস থেকে। আর গুড় হয় সাধারণত আখের রস বা খেজুর রস জ্বাল দিয়ে।

চিনিতে রয়েছে সুক্রোজ নামে এক ধরনের শর্করা। আর গুড়ে সুক্রোজের সঙ্গে থাকে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও লোহা। সেই সঙ্গে সামান্য প্রোটিনও থাকে গুড়ে। বিশেষজ্ঞদের দাবি, উপকারের প্রশ্ন উঠলে এগিয়ে থাকবে গুড়।

তাদের মতে, গুড় কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে। শরীরে হজমের এনজাইমের কার্যকারিতা বেড়ে যায় গুড় খেলে। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে, তারা লাঞ্চ বা ডিনারের ২০ মিনিট পর অল্প গুড় খেলে উপকার পেতে পারেন।

অ্যানিমিয়া প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে গুড়। এতে থাকা প্রচুর পরিমাণের আয়রন রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ায়। লিভার পরিষ্কার রাখে। প্রতি ১৫ দিন অন্তর অল্প পরিমাণ গুড় খেলে তা শরীর থেকে ক্ষতিকারক টক্সিন বের করে দেয়।

এমনকি ফ্লু সারাতেও নাকি গুড় বেশ কাজে দেয়, বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, কাশি হলে বা ঠাণ্ডা  লেগে নাক দিয়ে পানি পড়লে বা মাইগ্রেন, পেট ফাঁপার মতো রোগে হলে গুড় খাওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে  হালকা গরম পানিতে অল্প গুড় মিশিয়ে সেই পানিটুকু খেয়ে নিলে মিলবে উপকার। এছাড়া চায়ে চিনির বদলে গুড় খেলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

এসব ছাড়াও গুড় প্রি-মেনস্ট্রুয়াল সিনড্রোম কমায় বলেও মত বিশেষজ্ঞদের। তারা বলছেন, পিরিয়ডসের আগে অল্প পরিমাণ গুড় খেলে এন্ড্রোফাইন বা হ্যাপি হরমোন বেরিয়ে শরীরকে রিল্যাক্স করতে সাহায্য করে।

এছাড়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও গুড় বেশ কাজে দেয় বলেও দাবি বিশেষজ্ঞদের। তাদের দাবি অনুযায়ী, গুড়ে থাকে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, জিঙ্ক আর সেলেনিয়ামের মতো মিনারেল, যা শরীরে ফ্রি রেডিক্যাল ড্যামেজ প্রতিরোধ করে। এছাড়া বিভিন্ন সংক্রমণ থেকে লড়াই করার ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয় গুড়।  

তবে গুড়ে প্রচুর ক্যালরি থাকায় যাদের ডায়াবেটিস আছে বা যারা ওজন কমাতে দিনরাত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, তাদের গুড় এড়িয়ে চলারই পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।
সূত্র: জি নিউজ


ঢাকা, রবিবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৮৭৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন