সর্বশেষ
বুধবার ৩০শে কার্তিক ১৪২৫ | ১৪ নভেম্বর ২০১৮

বাকৃবিতে পরীক্ষা বন্ধ করে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ৪, ২০১৮

uuu.jpg
বাকৃবি প্রতিনিধি :

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) সকল ধরনের পরীক্ষা বন্ধ রাখা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যার পর অনিবার্য কারণ দেখিয়ে হঠাৎ করে পরীক্ষা বন্ধের নোটিশ দেওয়ায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অভিযোগ করে বলেন, শুধুমাত্র ছাত্রলীগের চাপেই প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা না করে হঠাৎ করে ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিতের নিদের্শনা দিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা দিবসে বুধবার রাত থেকে তিন দিন ব্যাপী নানা কর্মসূচির আয়োজন করে শাখা ছাত্রলীগ। প্রতিটি কর্মসূচিতে সকল শিক্ষার্থীদের অংশ্রগ্রহণ নিশ্চিত করতে বৃহস্পতিবারের ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত করার জন্য বেশ কিছু দিন ধরেই প্রশাসনকে বিভিন্নভাবে চাপ দিয়ে আসছিল ছাত্রলীগ। এর প্রেক্ষিতে বুধবার সাড়ে চারটার দিকে ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ককে টেলিফোন করে বৃহস্পতিবারের পরীক্ষা বন্ধ করার জন্য বলেন।

এ বিষয়ে ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক ও কৃষি অনুষদের ডীন অধ্যাপক মো. আবদুল কুদ্দুছ বলেন, ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টার অনুরোধে তাৎক্ষণিকভাবে প্রত্যেকটি অনুষদের ডীনদের সাথে কথা বলে পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত হয়। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. ইউসুফ আলী স্বাক্ষরিত পরীক্ষা স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি তরিগরি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ অফিসে বিতরণ করা হয়।      

দেখা গেছে, পূর্ব ঘোষিত সূচি অনুসারে বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬টি অনুষদের মোট ২১টি বিভাগের বিভিন্ন্  বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। বুধবার সন্ধ্যার পরে হঠাৎ করেই অনিবার্য কারণ দেখিয়ে পরীক্ষা স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি দেয়। তরিগরি করে নোটিশ প্রেরণ করায় তা অধিকাংশ শিক্ষার্থীর দৃষ্টিগোচর হয়নি। অধিকাংশ শিক্ষার্থী পরীক্ষা কেন্দ্র গিয়ে পরীক্ষা স্থগিতের কথা জানতে পারে। এসময় অনেক শিক্ষার্থী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, প্রস্তুতির নিয়ে পরীক্ষা দিতে না পেরে খারাপ লাগছে। একটি গোষ্ঠীর চাপে প্রশাসন হুট করে এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।

এদিকে পরীক্ষা স্থগিত করার বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক শিক্ষক জানান, হরতাল-অবরোধ এমনকি বিশ্ববিদ্যালয় দিবসেও ক্লাস পরীক্ষা বন্ধ করা হয় না। অথচ একটি গোষ্ঠীকে খুশি রাখতে প্রশাসন পরীক্ষা স্থগিত করেছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর বলেন, ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ক্লাস-পরীক্ষা হলে বিশৃঙ্খলা হতে পাওে, ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা এমন কথা জানালে আমি পরীক্ষা স্থগিত করতে রাজি হই।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ৪, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১১৩৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন