সর্বশেষ
শুক্রবার ১০ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ব্যাংক ঋণের সুদের হার ফের দুই অঙ্কের ঘরে

বুধবার ১৪ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮

child-watching-tv.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ব্যাংক ঋণের সুদের হার আবারো চলে গেছে দুই অঙ্কের ঘরে। তারল্য বাড়াতে বেশি সুদে আমানত নিতে গিয়ে ঋণের সুদহার বাড়িয়েছে বেশিরভাগ ব্যাংক। এতে খরচ বাড়ছে ছোট-বড় সব ব্যবসার। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, সুদের হার বাড়ার ফলে বিনিয়োগ ও প্রবৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হবে।

বেসরকারি খাতে ঋণের প্রবাহ বৃদ্ধির সঙ্গে ব্যাংক ঋণে সুদের হারও বাড়ছে। ঋণের চাহিদা বেড়ে যাওয়ার কারণে কোনো কোনো ব্যাংক ১০ থেকে ১২ শতাংশ সুদে ঋণ দেয়া শুরু করেছে। যদিও কয়েক মাস আগে ঋণ বিতরণ করে এক অঙ্কে সুদ পেয়েছে ব্যাংকগুলো। বেশি সুদের লোভে কোনো কোনো ব্যাংক নির্ধারিত সীমার চেয়েও বেশি পরিমাণ ঋণ বিতরণ করেছে। এ কারণে সৃষ্টি হচ্ছে তারল্য সংকট। এমন অবস্থায় সুদের হার বাড়িয়ে আমানত সংগ্রহ করছে কিছু ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন ও ব্যাংকগুলোর নীতিনির্ধারক পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে ব্যাংকগুলোতে ২০১১-১৩ সাল পর্যন্ত ঋণের গড় সুদের হার ছিল ১২ থেকে ১৪ শতাংশের মধ্যে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে তা দাঁড়ায় ৯ দশমিক ৩৫ শতাংশে। এখন তা আবার ১২ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। অন্যান্য চার্জ মিলিয়ে বাড়ে আরো কয়েক শতাংশ।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যমতে গত বছর সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকগুলোর অতিরিক্ত তারল্য ছিল ৯২ হাজার ১৬৩ কোটি টাকা। অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত বেসরকারি ব্যাংকগুলোর ঋণ অস্বাভাবিক বেড়েছে। ফলে নগদ টাকার সংকটে পড়তে হয়েছে ব্যাংকগুলোকে।

কাঙ্ক্ষিত জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। ব্যবসার খরচ বেড়ে গেলে বিনিয়োগে ব্যাঘাত ঘটবে, মত বিশ্লেষকদের। পণ্যের উৎপাদন খরচ বাড়লে মূল্যস্ফীতিতে যেন নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে সে ব্যাপারে সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশ্লেষকেরা।


ঢাকা, বুধবার ১৪ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি 294 বার পড়া হয়েছে