সর্বশেষ
সোমবার ৪ঠা আষাঢ় ১৪২৫ | ১৮ জুন ২০১৮

পুরুষ সেজে দুই মেয়েকে বিয়ে, অতঃপর...

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ১৬, ২০১৮

image-69537.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পুরুষ সেজে দুই মেয়েকে বিয়ে করার অভিযোগে আরেক নারী সুইটি সেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরাখণ্ডে।

শুধু দুই মেয়েকে বিয়ে করেই থেমে থাকেননি সুইটি। বিয়ের পর দুই নারীর ওপর রীতিমত অত্যাচারও করেন সুইটি।

পুলিশ জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের ধমপুরের বাসিন্দা সুইটি 'কৃষ্ণ সেন' নামে একটি ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে মেয়েদের সঙ্গে ভাব জমাত। তার পরে তাদের বিয়েও করত।

২০১৪ সালে প্রথম স্ত্রীকে বিয়ের আগে সুইটি তাকে জানায়, সে আলিগড়ের এক সিএফএল বাল্ব ব্যবসায়ীর ছেলে। ওই মহিলার পরিবারের কাছ থেকে সাড়ে আট লাখ টাকা পণ নেয় সে। পরে আবার তাকে পণের জন্য মারধরও করে।

এর মধ্যেই আবার অন্য এলাকার এক নারীর সঙ্গে ভাব জমায় সুইটি। তিনি আবার তার প্রথম বিয়েতে অতিথি হিসেবে হাজির ছিলেন। পরে তাকেও বিয়ে করে সুইটি। হলদোয়ানির তিকোনিয়া নামক এলাকায় একটি ঘর ভাড়া নিয়ে দুই 'স্ত্রী'র সঙ্গে থাকত সে।

দুই মহিলাই বুঝতে পারেন, সে পুরুষ নয়। দ্বিতীয় জনকে টাকার লোভ দেখিয়ে চুপ করাতে পেরেছিল সে। কিন্তু তার 'প্রথম স্ত্রী' হলদোয়ানি পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান। তার পরেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মেডিক্যাল পরীক্ষায় জানা গেছে, সুইটি নারীই। জেরায় সে জানিয়েছে, ছোটবেলা থেকেই তার ছেলেদের মতো হাবভাব ছিল। পুরুষ সাজার জন্য চুল কেটেও ফেলেছিল। মোটরসাইকেল চালাত। সিগারেট খেত।

সুইটির পরিবারের সদস্যরা তার দুই 'স্ত্রী'র বাড়িতে আশীর্বাদ ও বিয়ের সময়ে এসেছিল। তাদের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, সুইটির বিরুদ্ধে প্রথমে পণের জন্য হেনস্থার অভিযোগ আনা হয়েছিল। কিন্তু আইনত সে 'স্বামী'ই নয়। ফলে এখন তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়েছে।

মনোবিদদের মতে, সুইটির 'পার্সোনালিটি ডিসঅর্ডার' রয়েছে। কারণ, সে নিজের লিঙ্গ স্বীকার করতে রাজি নয়। যে ভাবে সে দুই স্ত্রী'র উপরে অত্যাচার করেছে তাতেও মানসিক গোলমালের প্রমাণ মেলে। সূত্র: আনন্দবাজার


ঢাকা, শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ১৬, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৩৬০২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন