সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ২১ নভেম্বর ২০১৯

যে সিদ্ধান্তের কারণে শাকিব-অপুর বিচ্ছেদ ঘটছে

সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮

pori-moni-daily-sun.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে শাকিব খান-অপু বিশ্বাস দম্পত্তির বিবাহ বিচ্ছেদের তৃতীয় ও শেষ শুনানি আজ সোমবার। শাকিবের অমতে বাচ্চা নেয়ায় তাদের বিচ্ছেদ হতে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস।

প্রথমে না করলেও পরবর্তীতে সমঝোতার কোনো সুযোগ নেই দেখে অপু বিশ্বাসও বিচ্ছেদ মেনে নিয়েছেন। ২০০৬ সালে এই জুটির প্রথম ছবির নাম ছিল ‘কোটি টাকার কাবিন’। তাদের বিয়েতেও কোটি টাকার কাবিন ছিল বলে অপুর দাবি।

অপু বিশ্বাস বলেন, ‘কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭  সেপ্টেম্বর জন্ম হয় আবরাম খান জয়ের। অপু বলেন, শাকিব চায়নি আমাদের সন্তান পৃথিবীতে আসুক। এজন্য 'অ্যাবরশন' করাতে প্রথমে ব্যাংকক পরে কলকাতার একটি ক্লিনিকে শাকিব তার চাচাতো ভাই মনিরকে দিয়ে আমাকে পাঠায়। চিকিৎসক সাফ জানিয়ে দেন 'অ্যাবরশন' করার আর কোনো স্টেজ নেই। তাই বাচ্চা জন্ম দেয়ার সিদ্ধান্ত নিই। আর এই সিদ্ধান্তই আমার জন্য কাল হয়ে দাঁড়াল।'

তিনি আরো বলেন, 'শাকিব জানিয়ে দিল সন্তানের জন্ম হলে সে আমাকে ডিভোর্স দেবে। যখন কলকাতার ক্লিনিকে জয়ের জন্ম হচ্ছিল তখন শাকিব কলকাতায় ‘শিকারি’ ছবির শুটিং করছিল। বার বার অনুরোধ সত্ত্বেও একটিবারের জন্যও সে আমাকে বা বাচ্চাকে দেখতে আসেনি।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২২ নভেম্বর অপুকে বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠিয়ে দেন শাকিব। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়, তিন মাস পর কার্যকর হবে বিবাহ বিচ্ছেদ। সেই হিসাবে ২২ ফেব্রুয়ারি শাকিবের বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠানোর তিন মাস পূর্ণ হয়।

তবে ওই সময় শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়নি বলে জানান ঢাকা সিটি করপোরেশনের (অঞ্চল-৩) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন। তিনি বলেন, আমরা সিটি করপোরেশন তাদের তিন মাসে তিনবার ডাকব, সেই তৃতীয়বার বিষয়টির ফয়সালা হবে। তিনি আরও জানান, আজ ১২ মার্চ তৃতীয় ও শেষবারের জন্য তাদের ডাকা হয়েছে। এদিন যদি তারা না উপস্থিত হন, তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়ে যাবে। শাকিব সিদ্ধান্তে অটল থাকায় আজই কার্যকর হতে যাচ্ছে এই তারকা দম্পতির বিচ্ছেদ।


ঢাকা, সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ১৬৪০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন