সর্বশেষ
রবিবার ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৮ নভেম্বর ২০১৮

হার্টের জন্য বিপজ্জনক পাঁচ সময়

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৯, ২০১৮

8041497.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

আপনার হার্ট বা হৃদপিণ্ডের জন্য কোন মুহূর্তগুলো সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ, রিডার্স ডাইজেস্টের একটি প্রতিবেদনে তা জানিয়েছেন হলিস্টিকের কার্ডিওলজিস্ট ডা. জোয়েল কে. কান।

তিনি বলেন, ২৫ বছর ধরে হৃদরোগীদের চিকিৎসাকালীন সময়ে আমি লক্ষ্য করেছি যে, হার্ট অ্যাটাক সবসময় যথেচ্ছভাবে আক্রমণ করে না। হার্ট অ্যাটাকের জন্য কিছু অনুমেয় ‘ডেঞ্জার জোন’ রয়েছে, বিশেষ করে হৃদরোগী বা হৃদরোগের ঝুঁকি রয়েছে এমন লোকদের ক্ষেত্রে। এসব উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ বিষয়ে সতর্ক থাকলে সঠিক জীবনযাপনের মাধ্যমে হার্টের সমস্যার সম্ভাবনা কমানো যাবে।

* ফ্লু
ফ্লুর উপসর্গ (যেমন- অত্যধিক ক্লান্তি, ব্যথা এবং উচ্চ জ্বর) হার্ট অ্যাটাকের জন্য যথেষ্ট না হলেও, ফ্লুর প্রথম তিনদিন পর্যন্ত হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা চারগুণ বেশি হতে পারে। এ ভাইরাস কোনো প্রদাহমূলক প্রতিক্রিয়াকে উত্তেজিত করতে পারে যা ধমনী ড্যামেজের কারণ হতে পারে। ধমনীর প্রতিবন্ধকতা প্রতিরোধ করে এমন খাবার খান। ডিহাইড্রেটেড থাকলে রক্ত ঘন হয়, যার ফলে রক্ত জমাটবদ্ধ হতে পারে। জ্বর আপনার হার্ট রেট বৃদ্ধি করতে পারে, যে কারণে হার্টের পক্ষে কাজ করা কঠিন হয়। ফ্লু হওয়ার কয়েকদিন পর মেডিক্যাল সেবা অনুসন্ধান করুন।

* খেলাধুলার বড় ইভেন্ট
বিশ্বাস করুন কিংবা না-ই করুন, আপনার দলের জন্য উল্লাসধ্বনি বা উৎসাহদায়ক ধ্বনি আপনার হার্টকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে- যদি আপনি খেলায় এতটাই আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন যে আবেগ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। গবেষকরা ফুটবলের চারটি বিশ্বকাপের উপাত্ত বিশ্লেষণ করে আবিষ্কার করেছেন যে, এই টুনার্মেন্টের ফাইনালের সময় হার্ট অ্যাটাক বৃদ্ধি পেয়েছে এবং হার্ট অ্যাটাকের রেট সর্বোচ্চ হয়েছে যখন প্রিয় দল অন্য দলের বিপক্ষে খেলেছে। যদি আপনি খেলাধুলার চিল্লাফাল্লাকারী সমর্থক হন, তাহলে প্রতিদিন বেবি অ্যাসপিরিন গ্রহণের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন। খেলা চলাকালীন সময়ে শান্ত থাকার চেষ্টা করলে সবচেয়ে ভালো হয়।

* ছুটি কাটানোর পরপরই কাজের চাপ
ছুটির দিন বা ছুটি কাটানোর পর কর্মক্ষেত্রে ফিরে নতুন সপ্তাহের কাজ নিয়ে স্ট্রেস বা মানসিক চাপে ভোগার ফলে অ্যাড্রিনালিন ও করটিসলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়, যা রক্তচাপ ও রক্ত জমাটবদ্ধতা বাড়াতে পারে। ডা. জোয়েল কে. কান বলেন, ‘প্রশান্তিদায়ক কার্যক্রম যেমন- যোগ ব্যায়াম বা মেডিটেশনের মাধ্যমে সপ্তাহ শুরু করে আমার রোগীরা উপকার পেয়েছেন, এমনকি তা পাঁচ থেকে দশ মিনিটের হলেও।’ কার্যতালিকা লম্বা হলে মানসিক চাপে না ভোগার চেষ্টা করুন, উদ্বেগ হ্রাস করে এমন কিছু শব্দগুচ্ছ মনে রাখুন। মধ্যাহ্নের স্ট্রেস দূর করার একটি ভালো উপায় হচ্ছে লাঞ্চের সময় হাঁটা।

* প্রিয়জনের মৃত্যু
গবেষকরা যুক্তরাষ্ট্রে হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়েছেন এমন হাজার হাজার লোকের ওপর গবেষণা চালিয়ে পেয়েছেন যে, যাদের প্রিয়জন মারা গেছে তাদের সে সপ্তাহে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেশি ছিল। সুইডিশ গবেষণায় পাওয়া গেছে যে, কোনো বয়স্ক প্রিয়জন মারা যাওয়ার কয়েক বছর পর্যন্ত হার্ট অ্যাটাকের বর্ধিত ঝুঁকি থাকতে পারে। যদি আপনার প্রিয়জন মারা যায় অথবা আপনি একাকিত্ব বা বিষণ্নতা অনুভব করেন, তাহলে কাউন্সেলিং এবং ডাক্তার, বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সাপোর্ট অনুসন্ধান করুন। কাউন্সেলিংয়ের পাশাপাশি বিষণ্নতা কাটিয়ে তোলে এমন অভ্যাস চর্চা করুন। ঘরে একা একা বসে থেকে বিষণ্নতায় ভুগবেন না।

* প্রাকৃতিক বিপর্যয়
জাপানে ২০১১ সালে সৃষ্ট হাজার হাজার লোকের প্রাণ হরণকারী ৮.৯ মাত্রার ভূমিকম্প ও সুনামির প্রথম তিন সপ্তাহে বেঁচে যাওয়া লোকদের মধ্যে হার্ট অ্যাটাকের রেট বিগত বছরগুলোর একই ক্যালেন্ডার সপ্তাহের তুলনায় তিনগুণ বেশি ছিল। প্রাকৃতিক দুর্যোগে সাহায্য করতে এগিয়ে আসা লোক এবং স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী লোকদের এ ব্যাপারে সচেতন থাকা গুরুত্বপূর্ণ।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৯, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১১৬৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন