সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বার কাউন্সিলে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী সমর্থিতদের জয়জয়কার

রবিবার, মে ২৭, ২০১৮

1_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

আইনজীবীদের সনদ প্রদানসহ নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে।

ফলাফলে দেখা যায়, বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ প্রার্থীদের জয়জয়কার। ১৪টি পদের মধ্যে তারা পেয়েছেন ১২টি। অপরদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য সমর্থিতরা পেয়েছেন ২টি পদ।

দেশের সব আইনজীবী সমিতি থেকে প্রেরিত বিভিন্ন বুথের ফল গতকাল দিনভর গণনা শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। খরব বাসস'র।

গতকাল রাত পর্যন্ত বার কাউন্সিল দপ্তরের সভা কক্ষে কাউন্সিলের চেয়ারম্যান এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ভোট গণনা করেন। তাকে সহায়তা করেছেন বার কাউন্সিল নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যরা এবং বার কাউন্সিল সচিব (জেলা ও দায়রা জজ) মো. রফিকুল ইসলাম।

১৪টি পদের মধ্যে সাধারণ ক্যাটাগরিতে ৭টি সদস্য পদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের মনোনীত প্যানেল সমর্থিত ছয়জন নির্বাচিত হয়েছেন। এ প্যানেল থেকে সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচিতরা হলেন- বার কাউন্সিলের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার (১৬৩০৬ ভোট), সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সিনিয়র এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুয়ায়ুন (১৪০৯৮ ভোট), এডভোকেট সৈয়দ রেজাউর রহমান (১৪১৮৪ ভোট), এডভোকেট জহিরুল ইসলাম (জেড আই) খান পান্না (১৪৪৯৭ ভোট), এডভোকেট শ.ম রেজাউল করিম (১৪৬৬৪ ভোট), এডভোকেট মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান বাদল (১৩২৮৮ ভোট)।

অপরাদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল সমর্থিত প্যানেল থেকে সাধারণ সদস্য পদে এডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী নির্বাচিত হয়েছেন (১৩৭১২ ভোট)।

গ্রুপভিত্তিক সাতটি পদের মধ্যে সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের ছয়টি পদে জয়লাভ করেছে। তারা হলেন- বৃহত্তর ঢাকা জেলার সকল আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ -এ) এডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু (৫১৭৫ ভোট), বৃহত্তর ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ বি) মো. কবির উদ্দিন ভূঁইয়া (১৫৬৫ ভোট), বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা ও সিলেট জেলা অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ ডি) এ এফ মো. রুহুল আনাম চৌধুরী মিন্টু (১৬১৬ ভোট), বৃহত্তর খুলনা, বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ-ই) পারভেজ আলম খান (১৮৫৮ ভোট), বৃহত্তর রাজশাহী, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ-এফ) মো. ইয়াহিয়া (১৪৬৭ ভোট) এবং বৃহত্তর দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়া ও পাবনা জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ-জি) মো. রেজাউল করিম মন্টু (১৪৬৩ ভোট) নির্বাচিত হয়েছেন।

গ্রুপভিত্তিক পদে শুধু বৃহত্তর চট্টগ্রাম ও নোয়াখালী জেলার আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ-সি) জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল থেকে এডভোকেট মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী (১৯৩০ ভোট) নির্বাচিত হয়েছেন।

ঘোষিত ফলাফলে টানা দ্বিতীয় বারের মতো এবারও সর্বাধিক ভোট পেয়েছেন সিনিয়র এডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার। তিনি পেয়েছেন ১৬,৩০৬ ভোট। দ্বিতীয় হয়েছেন এডভোকেট শ.ম রেজাউল করিম (১৪,৬৬৪ ভোট)। বার কাউন্সিলে নবম বারের মতো নির্বাচিত হলেন ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামল মামলার রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান।

প্রতি তিন বছর অন্তর বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। একজন ভোটার মোট আটটি ভোট দিতে পারেন। এর মধ্যে সাধারণ আসনের জন্য ৭টি ভোট এবং অঞ্চলভিত্তিক একটি ভোট। বার কাউন্সিল ১৫ জন সদস্যের সমন্বয়ে পরিচালিত হয়। এর মধ্যে রাষ্ট্রের এটর্নি জেনারেল পদাধিকার বলে এর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। বাকি ১৪ জন আইনজীবীদের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হন।

১৪ জনের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ মতামতের ভিত্তিতে একজন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সারাদেশে সনদপ্রাপ্ত আইনজীবীদের (বার কাউন্সিলের সদস্য) ভোটে সাধারণ আসনে সাতজন এবং দেশের সাতটি অঞ্চলের লোকাল আইনজীবী সমিতির সদস্যদের মধ্য থেকে একজন করে সাতজন নির্বাচিত হন।

এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও বার কাউন্সিল সচিব মো. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ফলাফল গেজেট আকারে প্রজ্ঞাপনের পর নবনির্বাচিত সদস্যরা দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন। নতুন কমিটি ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।


ঢাকা, রবিবার, মে ২৭, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৪২৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন