সর্বশেষ
রবিবার ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৮ নভেম্বর ২০১৮

পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব

বৃহস্পতিবার, জুন ৭, ২০১৮

bauget-large.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

যোগাযোগ ব্যবস্থাকে প্রাধান্য দিয়ে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে সড়ক ও যোগাযোগ ব্যবস্থা। এ খাতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৫৬ হাজার ৪৭৫ কোটি টাকা।

এছাড়াও ঢাকা মহানগরীর যানজট নিরসনের জন্য পরিবহন সেক্টর পুনর্গঠনের কথা বলা হয়েছে বাজেট বক্তৃতায়।

অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি যোগাযোগ ব্যবস্থা। তাই ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে সড়ক-রেল ও নৌপথকে গুরুত্ব দিয়ে এ খাতে দেয়া হয়েছে উন্নয়ন বাজেটের সর্বোচ্চ ২৬.৬ শতাংশ বরাদ্দ। টাকার অংকের পরিমাণ ৫৬ হাজার ৪৭৫ কোটি টাকা।

বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, যোগাযোগ ও পরিবহন খাতে সরকারের মূল লক্ষ্য চলমান কার্যক্রমসমূহ সময় মতো ও দক্ষ বাস্তবায়ন এবং বাস্তবায়নোত্তর মানোন্নয়ন। সেই সঙ্গে দেশের ১ হাজার ১৪০ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়কে যথাযথ মানসম্পন্ন ও প্রশস্ত করার জন্য নেয়া হয়েছে ১০টি গুচ্ছ প্রকল্প।

ঢাকা মহানগরীর অভ্যন্তরীণ সড়ক নেটওয়ার্ক উন্নয়নের জন্য ৫টি এমআরটি, ২টি বিআরটি, ৩ স্তর বিশিষ্ট রিং রোড, ৬টি এক্সপ্রেসওয়ে এবং বাস পরিবহন পুনর্গঠনের কথা বলা হয়েছে।

পণ্য ও যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে রেল খাতের বরাদ্দ বাড়িয়ে নেয়া হয়েছে ২০ বছর মেয়াদী মহাপরিকল্পনা। বৈদেশিক বাণিজ্যে প্রতিযোগিতামূলক অবস্থান তৈরিতে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে নদী-সমূদ্র ও স্থল বন্দরের জন্য অবকাঠামো ও পরিচালন ব্যবস্থা। সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২৪ হাজার ৩৮০ কোটি টাকা।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১৪ হাজার ৫৪২ কোটি কোটি টাকা। নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৩ হাজার ৫৩৭ কোটি টাকা।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জুন ৭, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৬২৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন