সর্বশেষ
সোমবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৯ নভেম্বর ২০১৮

খালেদার জামিননামা কারাগারে

সোমবার, জুন ২৫, ২০১৮

4_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিননামা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী খালেদার জামিননামায় স্বাক্ষর করেন। এরপর ডাকযোগে তা নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর জুডিশিয়াল মুন্সিখানা শাখার পেশকার ওমর ফারুক চৌধুরী।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, আমরা জামিননামা মে মাসে দাখিল করেছি। দীর্ঘদিন পর আজ জামিননামা স্বাক্ষর হয়েছে। এই যদি হয় আইনের শাসন আমরা কই যাবো।

তিনি বলেন, জামিননামাটি কারাগারে পাঠানো হয়েছে। কারা কর্তৃপক্ষ যাচাই-বাচাই করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন। এর আগে ১৬ মে, ঢাকা মহানগর জুডিশিয়াল মুন্সিখানায় এ জামিননামা দাখিল করেন আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া ও জয়নাল আবেদীন মেজবাহ।

ওইদিন জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে সাজার বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার দায়ের করা হাইকোর্টের আপিল আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করার জন্য সংশ্লিষ্ট বেঞ্চকে নির্দেশ দেন আদালত।

আপিল বিভাগ থেকে খালেদা জিয়া জামিন পেলেও অন্য মামলায় গ্রেপ্তার থাকায় আপাতত তিনি মুক্তি পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের আইনজীবীরা। গত ১২ মার্চ দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

পাশাপাশি এ মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা কেন বাড়ানো হবে না- তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেন আদালত। এরপর ১৯ মার্চ প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ ৮ মে পর্যন্ত জামিন স্থগিতের আদেশ দেন।

একই সঙ্গে দুই সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের আইনজীবীদের আপিলের সার-সংক্ষেপ জমা দিতে বলেন। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামানের আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

একই সঙ্গে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয় আসামির প্রত্যেককে দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা করে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন। রায়ের দিনই খালেদা জিয়াকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।


ঢাকা, সোমবার, জুন ২৫, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ১২৪৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন