সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ইউটিউব দেখে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক স্ত্রীকে প্রসব করালেন স্বামী, পরে যা ঘটল

শুক্রবার, জুলাই ২৭, ২০১৮

image-74555-1532686202.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ইউটিউবের ভিডিও দেখে বাড়িতেই স্ত্রীর সন্তান প্রসব করিয়েছিলেন স্বামী। তবে সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরই প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে। কার্ত্তিকেয়ান ও কৃতিগা নামক ওই দম্পতির দুজনেই বেসরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের তিরুপ্পুরে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর এনডিটিভির।

ওই দম্পতির বন্ধুরা জানিয়েছেন, তারা দুজনেই প্রাকৃতিক উপায়ে সন্তান জন্ম দিতে বাড়িতেই প্রসবের সিদ্ধান্ত নেন।

গত রোববার দুপুরে ২৮ বছরের কৃতিগার প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয়। এর পর স্বামীর সহায়তায় দুপুর দেড়টায় বাড়িতেই তিনি সন্তান প্রসব করেন। কিন্তু তার ঘণ্টাখানেক পর আচমকাই কৃতিগা বারবার অজ্ঞান হতে শুরু করেন। তার পর তার স্বামী ১০৮ নম্বরে ডায়াল করে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে আনেন।

তিরুপ্পুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক কে বুপথি জানান, প্রসবের সময় কৃতিগার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয় এবং তার ফলে তিনি প্রচণ্ড মানসিক আঘাত পান। তার পরেই তিনি মারা যান।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই পরিবারের সদস্যদের ধারণা ছিল ওই দম্পতির দাদা থাঙ্গাভেলুর মৃত্যুর এক সপ্তাহ বাদে কৃতিগার গর্ভে তাদের দ্বিতীয় সন্তান রূপে তিনিই ফেরত এসেছেন।

তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা জেয়াচন্দ্রন বলেন, তারা প্রত্যেকে প্রাকৃতিক উপায়ে প্রসবের পক্ষপাতিত্ব করতেন এবং ওই নারী গর্ভাবস্থায় কোনো দিন ডাক্তারের পরামর্শ নিতে বা হাসপাতালে যাননি। অন্য এক দম্পতি প্রবীণ কুমার এবং তার স্ত্রী লাবণ্য, যারা কৃতিগা ও কার্ত্তিকেয়ানের বন্ধু ছিলেন, তারাও বাড়িতে সন্তান প্রসবের পক্ষে ছিলেন।

লাবণ্য ওই দম্পতিকে বলেছিলেন তাদেরও দ্বিতীয় সন্তান বাড়িতেই প্রসব করেছেন। প্রবীণ ও লাবণ্য আরও বেশ কিছু দম্পতিকে বাড়িতে সন্তান প্রসবে সহায়তা করেছেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ।

কৃতিগার মৃত্যুর ঘটনায় তার স্বামী কার্ত্তিকেয়ানকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। এ দম্পতির তিন বছর বয়সী এক কন্যাসন্তান আছে ও নবজাতক শিশুপুত্রটি এখন ভালো আছে বলে জানা গেছে।


ঢাকা, শুক্রবার, জুলাই ২৭, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৫৪৮৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন