সর্বশেষ
সোমবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৯ নভেম্বর ২০১৮

নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানিতে সাড়া পাননি মেয়র

বুধবার, আগস্ট ২২, ২০১৮

resize-728x410x1x0image-83140-1534951480.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কোরবানি পশুর বর্জ্য দ্রুত সময়ের মধ্যে অপসারণের জন্য নিদিষ্ট জায়গা নির্ধারণ করে দিয়েছিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। নির্ধারিত এসব জায়গায় প্রয়োজনীয় প্যান্ডেল তৈরিও করে দেওয়া হয়েছে। তবুও এসব স্থানে নগরবাসীকে কোরবানি দিতে দেখা যায়নি।

নগরবাসীর কাছ থেকে তেমন সাড়া না মেলায় হতাশা প্রকাশ করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।

বুধবার (২২ আগস্ট) দুপুরে ধোলাইখাল সংলগ্ন কাউয়ারটেক পশুরহাটে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ কাজ উদ্বোধনের সময় তিনি এ হতাশা প্রকাশ করেন।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, আমরা প্রায় ৬০২টির মতো নির্ধারিত স্থান করে দিয়েছি। পর্যাপ্ত ব্যবস্থাপনাও ছিল। কিন্তু এ পর্যন্ত আমরা সেভাবে নগরবাসীর সাড়া পাইনি। এটা হতাশাব্যাঞ্জক। আমরা তারপরও সম্মানিত নাগরিকদের অনুরোধ জানাচ্ছি, আমাদের ব্যবস্থাপনা রয়েছে, আপনার নির্ধারিত স্থানে পশু জবাই দিন।

আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে জানিয়ে এ কার্যক্রমে সাঈদ খোকন নগরবাসীর সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, কোথাও কোনো ধরনের বর্জ্য পড়ে থাকতে দেখলে আপনারা আমাদের নির্ধারিত কল সেন্টারে ফোন করে জানাবেন। আমাদের নম্বর হচ্ছে ০৯৬১১০০০৯৯৯।

মেয়র বলেন, গত বছর আমরা প্রায় ২০ হাজার টন বর্জ্য অপসারণ করেছি। এবারও এ পরিমাণ বর্জ্য অপসারণ করার জন্য আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে। দুই সিটি করপোরেশন ঘোষিত সময়ের মধ্যে আমরা একটি পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দেব।

অন্যদিকে একই সময়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর ব্রিজের কাছে পশুরহাটের বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা বলেন, আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সব বর্জ্য আপসারণ করবো। আমাদের কার্যক্রম সঠিক নিয়মেই হচ্ছে।


ঢাকা, বুধবার, আগস্ট ২২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৬২৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন