সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সত্যিকারের বিষধর সাপ যাকে বলে

শনিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৮

4.-King-Cobra20180825052656.jpg ছবি উৎস : শঙ্খচূড়
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সাপ সব সময় ভয়ের প্রাণী নয়। এরা বিশ্বের উপকারী সরীসৃপেরও অন্যতম। আবার কিছু সাপ আছে ভয়ংকর বিষাক্ত। একটি কামড়ই কেড়ে নিতে পারে মানুষের প্রাণ।

ক্রেইট বা শাঁখামুঠি (Common Krait): নীলচে ছাইরঙা গায়ে কালো ডোরা কাটা এই সাপ শান্ত। তবে ক্ষিপ্তগতি (পাখিও ধরতে পারে)। ঠাণ্ডা জায়গা পছন্দ করে। এদের খাদ্য অন্য ছোট সাপ। মানুষের কাছাকাছি থাকা এবং তীব্র বিষের কারণে এরা বাংলাদেশের সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ।

খইয়া গোখরা বা দেশি কেউটে (Binocellate Cobra): এরা মানুষের খুব কাছাকাছি থাকে বা থাকতে ভালোবাসে। ফলে প্রায়ই মানুষের বাসাবাড়ি, উঠানে এদের পাওয়া যায়। বাংলাদেশে বিষাক্ত সাপের দংশনের বেশিরভাগই খইয়া গোখরার দংশন।

পদ্ম গোখরা (Monocellate Cobra): মানুষের বসতবাড়ির আশপাশে, চাষের জমি, বনাঞ্চল বা ধানক্ষেতের আশপাশের ইঁদুরের গর্তে থাকতে ভালোবাসে। এরা লম্বায় প্রায় সাত ফুট পর্জন্ত লম্বা হতে পারে।

শঙ্খচূড় (King Cobra): পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা বিষাক্ত সাপ কিং কোবরার মাত্র কয়েক মিলিলিটার বিষ প্রায় ২০ জন পূর্ণবয়স্ক মানুষকে মেরে ফেলতে পারে। এটি লম্বায় প্রায় ৫.৬ মিটার বা ১৯ ফিটের কাছাকাছি হয়। রং কালো, জলপাই রং বা ধূসর এ সাপটি চীন ও ভারতীয় উপমহাদেশের জঙ্গলে বসবাস করে। সুন্দরবনের গভীরে এ সাপের অস্তিত্ব দেখতে পাওয়া যায়। অন্য ছোট সাপ এদের প্রধান খাদ্য।

শঙ্খিনী বা শাঁকিনী (Banded Krait): কালোর মধ্যে হলুদ ডোরাকাটা এই সাপ সিলেট, পার্ব্যত্য চট্টগ্রামের বনাঞ্চলে বসবাস করে। এরা ছয় ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে।

চন্দ্রবোড়া (Russell’s Viper): বিশ্বব্যাপী এই সাপ রাসেল ভাইপার নামে পরিচিত। রাজশাহী ময়মনসিংহ ও সিলেটে এই সাপ বেশি পাওয়া যায়। শুষ্ক পরিবেশে বাসকারী এ সাপ এক থেকে দেড় মিটার লম্বা হয়। এরা অনেক উঁচু গাছ কিংবা দেয়ালও অতিক্রম করতে পারে।


ঢাকা, শনিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৫৭০৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন