সর্বশেষ
সোমবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৯ নভেম্বর ২০১৮

স্যার ব্র্যাডম্যানের জন্মদিনে কিছু অজানা তথ্য

সোমবার, আগস্ট ২৭, ২০১৮

17.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

আজ কিংবদন্তি অজি ক্রিকেট তারকা স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের ১১০ তম জন্মদিন। শুধু অজি ক্রিকেটমহলেই নয়, বরং গোটা ক্রিকেটবিশ্বে অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় স্যার ডন৷ ১৯০৮ সালের ২৭ আগস্ট নিউ সাউথওয়েলসের কুতামুন্দ্রায় জন্মগ্রহণ করেন৷ ১৯২৮ সালের ৩০ নভেম্বর ব্রিসবেনে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করা ব্র্যাডম্যান অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৫২টি টেস্ট খেলেছেন৷

জন্মদিনে সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার সম্পর্কে বেশ কিছু অজানা তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে ডিএমপি নিউজ।

# স্কুলে পড়াশোনার সময় ব্র্যাডম্যানের প্রিয় বিষয় ছিল গণিত।

# পিয়ানো বাজিয়ে গান করতে অসম্ভব ভালবাসতেন তিনি। ১৯৩০ সালে, ‘এভরিডে ইজ আ রেনবো ডে ফর মি’ নামে একটি গান কম্পোজ করে রেকর্ড করেছিলেন। পিয়ানোবাদক হিসেবেও ‘অ্যান ওল্ড ফ্যাশনড লকেট’ এবং ‘আওয়ার বাংলো অব ড্রিমস’ নামে তার দু’টি গান আছে।

# অস্ট্রেলিয়ার সমস্ত প্রদেশ এবং প্রদেশের রাজধানীতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটবোর্ডের যে অফিস আছে সব অফিসের পোস্ট বক্স নম্বর ৯৯৯৪। এটি স্যর ডনের ব্যাটিং অ্যাভারেজ ৯৯.৯৪ এর সম্মানে।

# সম্মান প্রদর্শনের কারণে গোলাপের একটা বিশেষ জাতের নামকরণ করা হয়েছে ব্র্যাডম্যানের নামানুসারে। হাইব্রিড টি রোজ নামে এই প্রজাতিটি অনলাইনেও পাওয়া যায়।

# অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে একমাত্র ব্র্যাডম্যানকেই নাইটহুড উপাধি দেওয়া হয়েছে। তিনি ‘স্যর’ হন ১৯৪৯ সালে। ক্রিকেটে অবদানের জন্য তাকে নাইটহুড দেওয়া হয়।

# স্যার ব্র্যাডম্যান নিজে চাইতেন তাকে সবাই মানুষ হিসাবে মনে রাখুন। ক্রিকেটার হিসাবে নয়। এ কথা জানিয়েছেন ব্র্যাডম্যানের ছেলে।

# ১৯৪৮ সালের ভারতের কাঠিয়াওয়ারে আঞ্চলিক দলের সঙ্গে ক্রিকেট খেলছিল মহারাষ্ট্রের দল। নিম্বলকর নামে এক ব্যাটসম্যান যখন ৪৪৩ রানে অপরাজিত তখন দুই দল ও আম্পায়ার মিলে সেই ম্যাচ না খেলার সিদ্ধান্ত নেন। স্যর ডনের ৪৫২ রানের সেই সময়ের রেকর্ড অতিক্রম করাটা উচিত মনে করেননি তারা।

# অত্যন্ত সাবধানে গাড়ি চালাতেন ব্র্যাডম্যান। শুধুমাত্র বাঁ দিকে গাড়ি ঘোরাতেই পছন্দ করতেন। যাকে বলে কনসেন্ট্রিক সার্কেলই ছিল তার পছন্দের।

# বিখ্যাত অঙ্কবিদ জি এইচ হার্ডি ‘ব্র্যাডম্যান ক্লাস’ বলে একটা টার্ম বের করেছিলেন। অন্যতম মানদণ্ড বোঝাতে এই শব্দবন্ধ ব্যবহার করা হয়।

# নাতি নাতনি গ্রিটা আর টমের সঙ্গে সময় কাটাতে সবচেয়ে বেশি ভালবাসতেন ব্র্যাডম্যান। খেলাচ্ছলে দাদুর চুলে ঝুঁটি পর্যন্ত বেঁধে দিত দুই খুদে।

# রোবেন দ্বীপে বন্দি ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অবিসংবাদিত নেতা ‘মাদিবা’ নেলসন ম্যান্ডেলা। ১৯৯০ সালে দীর্ঘ ২৭ বছর কারাবাসের পর মুক্তি পান। মুক্তি পাওয়ার পরে তার প্রথম কথাটি ছিল, 'স্যার ডন ব্র্যাডম্যান কি এখনও জীবিত আছেন?'


ঢাকা, সোমবার, আগস্ট ২৭, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ১৩০৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন