সর্বশেষ
শুক্রবার ৬ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পুলিশের গুলিতে হলিউড অভিনেত্রীর মৃত্যু, জেতা হলো না অস্কার

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

ap-9.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারালেন হলিউড অভিনেত্রী ভেনেসা মার্কেজ। যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসের পাসাদেনায় গত বৃহস্পতিবার অভিনেত্রীর নিজ বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, তিনি পুলিশের দিকে বন্দুক তাক করেছিলেন। তখন আত্মরক্ষার্থে এক পুলিশ সদস্য তার দিকে গুলে ছোড়ে। এতেই ভেনেসা মারা যান। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

ওইদিন লস অ্যানজেলেসে পাসাদেনার বাড়িতেই ছিলেন তিনি। ওই বাড়ির মালিক এক পর্যায়ে পুলিশকে খবর দেন। তিনি তাদেরকে জানান যে, তার বাড়িতে একজন নারী উন্মত্তের মতো আচরণ করছেন। খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যায় পুলিশ। তাদের সঙ্গে যায় একটি মেডিকেল টিমও। তারা সেখানে পৌঁছে ভেনেসার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে।

তার শারীরিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার চেষ্টা করে। পুলিশ প্রায় এক ঘন্টা ভেনেসাকে বোঝায়। তাকে শান্ত করার চেষ্টা করে। সার্জেন্ট জো মেন্ডেজার দাবি, ভেনেসাকে যখন শান্ত করার চেষ্টা চলছিল, সে সময়ই তিনি একটা বন্দুক এনে পুলিশের দিকে তাক করেন। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে আত্মরক্ষার্থে পুলিশের এক অফিসার ভেনেসাকে গুলি করে। পুলিশের দাবি, ভেনেসার হাতে বিবি-টাইপ বন্দুক ছিল। এটা এক ধরনের সেমি-অটোমেটিক হ্যান্ড গান।

এক বিবৃতিতে লস অ্যানজেলেস পুলিশ জানিয়েছে, ভেনেসার বাড়িতে পৌঁছে অফিসাররা যখন তার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে, তখন অদ্ভুত আচরণ করছিলেন তিনি। তাকে বোঝানোর চেষ্টা করেও কোন লাভ হয়নি। উল্টো হঠাৎই তিনি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন। পুলিশ তাকে মানসিকভাবে অসুস্থ দাবি করলেও, ভেনেসার এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু টেরেন্স টোয়েল্স ক্যান্টো সংবাদ সংস্থা এপি-কে জানান, তার বন্ধুর শারীরিক ও আর্থিক সমস্যা থাকলেও মানসিক কোনও সমস্যা ছিল না।

তিনি বার বারই বলতেন, অভিনয়ে ফিরবেন। অস্কার জেতার স্বপ্নও দেখতেন বলে জানিয়েছেন ভেনেসার ঘনিষ্ঠ বন্ধু টেরেন্স। গত বছরই তার সহ-অভিনেতা জর্জ ক্লুনির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন এই অভিনেত্রী। যৌন হেনস্থার ঘটনা প্রকাশ্যে আনার জন্য টিভি সিরিজ থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেছিলেন ভেনেসা। যদিও পরে এক বিবৃতি দিয়ে জর্জ ক্লুনি সেই অভিযোগ অস্বীকার করেন।

১৯৯৪-’৯৭ পর্যন্ত আমেরিকার বিখ্যাত টিভি সিরিজ ‘ইআর’-এ অভিনয় করেছেন ভেনেসা। সেখানে তাকে ওয়েন্ডি গোল্ডম্যান নামে এক নার্সের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যায়। এ ছাড়া ‘ব্লাড ইন ব্লাড আউট’ (১৯৯৩) এবং ‘টোয়েন্টি বাকস’ নামে ছবিতে অভিনয় করেছেন।


ঢাকা, শনিবার, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৮০৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন