সর্বশেষ
বুধবার ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ট্রাম্প প্রশাসনের নীতি পরিবর্তন হাস্যকর: ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮

11.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ তার দেশের ব্যাপারে মার্কিন প্রশাসনের নীতি পরিবর্তনকে হাস্যকর বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি শনিবার রাতে এক টুইটার বার্তায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও’র ইরান বিরোধী বক্তব্য প্রত্যখ্যান করেন। খবর পার্সটুডে'র।

জারিফের টুইটার বার্তায় বলা হয়েছে, 'হঠাৎ করে ট্রাম্প প্রশাসনের অবস্থান পরিবর্তন সত্যিই হাস্যকর। এক সপ্তাহে তাদের বক্তৃতা-বিবৃতির ধরণ হচ্ছে এই যে, ইরান বিদেশে তার সম্পদ 'অপচয় করছে।' পরের সপ্তাহে তারা বলছে, ইরান ফিলিস্তিনিদেরকে তেমন কোনো সাহায্য দেয়নি।'

পম্পেও গতকাল শনিবার এক টুইটার বার্তায় দাবি করেন, আমেরিকা ১৯৯৪ সাল থেকে ফিলিস্তিনিদেরকে প্রায় ৬৩০ কোটি ডলার সাহায্য দিলেও ইরান ফিলিস্তিনিদের তেমন কোনো সাহায্য দেয়নি। অথচ এর আগে এই পম্পেও অভিযোগ করেছিলেন, ইরান পরমাণু সমঝোতা থেকে অর্জিত অর্থ ফিলিস্তিনিদের পেছনে 'অপচয় করছে।'

এদিকে, পম্পেও এমন সময় এ দাবি করলেন যখন গত এক বছরে ফিলিস্তিন ইস্যুকে ধামাচাপা দেয়ার জন্য ওয়াশিংটন ব্যাপক চেষ্টা চালিয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বায়তুল মুকাদ্দাস শহরকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করে সেখানে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করেছেন। ফিলিস্তিন বিরোধী সর্বশেষ পদক্ষেপ হিসেবে ট্রাম্প প্রশাসন নির্যাতিত ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি সব ধরনের আর্থিক সহায়তা বন্ধ ঘোষণা করেছে।

ফিলিস্তিনি জনগণ ও সেখানকার সংগ্রামী সংগঠনগুলো তাদের প্রতি বৈরী আচরণের জন্য ওয়াশিংটনকে দায়ী করেছে। অন্যদিকে তারা তাদেরকে সমর্থন ও সহযোগিতা করার জন্য সব সময় ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে।

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মুখপাত্র সামি আবুজুহরি সম্প্রতি বলেছেন, ফিলিস্তিনি জাতির আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতি সমর্থন জানানোর দিক দিয়ে ইরানের সমকক্ষ কেউ নেই।


ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৩০৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন