সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৪ঠা পৌষ ১৪২৫ | ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮

pm-sheikh-hasina-1_4.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব উত্থাপন করবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বৃহস্পতিবার তার মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তার আগেকার ৫-দফা প্রস্তাবের ধারাবাহিকতায় কিছু সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব পেশ করবেন। খবর বাসসের।

জাতিসংঘের পূর্ববর্তী ৭২তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে ৫টি সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলেন এবং যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রশংসা অর্জন করেছে। সাধারণ পরিষদের আসন্ন এই অধিবেশন ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী এই অধিবেশনে যোগ দিতে শুক্রবার নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

মাহমুদ আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে ২৭ সেপ্টেম্বর তাঁর এই প্রস্তাব উত্থাপন করবেন। বরাবরের মতো এবারের অধিবেশনেও বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

এ বছর সাধারণ অধিবেশনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে- ‘মেকিং দ্য ইউনাইটেড নেসন্স রিলেভেন্ট টু অল পিপল: গ্লোবাল লিডারশিপ এ্যান্ড শেয়ারড রেসপনসিবিলিটিস ফর পিসফুল, ইকুইটএ্যাবল এ্যান্ড সাসটেইনএ্যাবল সোসাইটিজ।’ রোহিঙ্গা ইস্যু ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব শান্তি, নিরাপত্তা অভিবাসন, ফিলিস্তিনের জনগণের অধিকার, নারীর ক্ষমতায়ন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে আলোচনা করবেন বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব নেতৃবৃন্দের সামনে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা ও দেশের চলমান গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন তুলে ধরবেন।

একই দিনে শেখ হাসিনা ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) আয়োজিত রোহিঙ্গা মানবিক সংকট শীর্ষক এক উচ্চপর্যায়ের পার্শ্ব অনুষ্ঠানেও অংশ নেবেন। তিনি দীর্ঘদিনের অমীমাংসিত রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে মুসলিম উম্মার তরফে একটি সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টা গ্রহণের বিষয়ে ওআইসি সদস্য দেশগুলোর প্রধানদের সঙ্গে আলোচনা করবেন।

ওইদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘হাই লেভেল ডিসকাশন অব ইকোনোমিক গ্রোথ থ্রো উইমেন্স এম্পাওয়ারমেন্ট’ শীর্ষক এক উচ্চপর্যায়ের সভায় বক্তব্য রাখবেন। জাতিসংঘ মহাসচিবও এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন।

২৪ সেপ্টেম্বর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘হাই লেভেল ইভেন্ট অন দ্য গ্লোবাল কমপ্যাক্ট অন রিফিউজিস : এ মডেল ফর গ্রেটার সলিডারিটি এন্ড কো-অপারেশন’ শীর্ষক এক বৈঠকে অংশ নেবেন। এখানে তিনি রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কিভাবে আরো বেশি অবদান রাখতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা করবেন। জাতিসংঘ মহাসচিব এ বৈঠকে অংশ নেবেন।

একই দিনে তিনি ম্যান্ডেলার শততম জন্মবার্ষিকী পালন উপলক্ষে ‘নেলসন ম্যান্ডেলা পিস সামিট : ইউএনজিএইচ হাই লেভেল প্লেনারি অন গ্লোবাল পিস’-এ অংশ নেবেন, যেখানে বিশ্ব শান্তি বিষয়ে একটি রাজনৈতিক ঘোষণা গৃহীত হবে।

পরে শেখ হাসিনা কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আয়োজনে নারী ও মেয়েদের শিক্ষার জন্য বিনিয়োগ সংক্রান্ত এক আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

মাহমুদ আলী বলেন, বাংলাদেশ ২৫ সেপ্টেম্বর ‘হাই লেভেল সাইড ইভেন্ট অন সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করবে।

তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন এবং অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন তাঁর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব আহমেদ ওয়াজেদ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশন চলাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুটি পুরস্কার গ্রহণ করবেন।

তিনি বলেন, গ্লোবাল নিউজ এজেন্সি ইন্টার প্রেস সার্ভিস (আইপিএস) রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল ও দূরদর্শী নেতৃত্বের জন্য তাঁকে সংগঠনটির পক্ষ থেকে তাঁর অত্যন্ত মর্যাদাশীল ইন্টারন্যাশনাল এচিভমেন্ট এওয়ার্ড’ প্রদান করবে। তাছাড়া গ্লোবাল হোপ কোয়ালিশন তাঁকে ‘২০১৮ স্পেশাল রিকগনিশন ফর আউটস্ট্যান্ডিং লিডারশিপ এওয়ার্ড’ প্রদান করবে।

আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১৭৬৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন