সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮

পাকস্থলীতে গ্যাস এড়াবেন যেভাবে

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮

89003-acidity-10-7-17.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পাকস্থলীতে গ্যাসের সমস্যায় কমবেশি সবাই ভোগেন। কখনও কখনও এটা হজমের সমস্যার কারণে হয়, কখনও পেটে বাতাস ঢোকার কারণে হয় কখনওবা কিছু বদভ্যাসের কারণে হয়। গ্যাসের সমস্যা নিরাময়ে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।

অার যদি নিয়মিত আপনি গ্যাসের সমস্যায় ভোগেন , পেটে ব্যথা, বুকে জ্বালাপোড়া অনুভব করেন তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

১. কিছু কিছু ব্যক্তি আছেন যারা সারাক্ষণ চুইং গাম চিবুন এবং কথা বলেন। এ ধরনের অভ্যাসে শরীরে প্রচুর বাতাস ঢুকে গ্যাসের সৃষ্টি করে। এ জন্য এ ধরনের অভ্যাস পরিহার করা উচিত।

২. কি পরিমান দুগ্ধজাত খাবার আপনার জন্য সহনীয় তা লক্ষ্য রাখুন। বেশি পরিমাণে এ ধরনের খাবার খেলে অনেকসময় পেটে গ্যাস তৈরি করে।

৩. দ্রুত খাবার খাওয়া পেটে গ্যাস তৈরির অন্যতম কারণ। এ কারণে খাবার আস্তে আস্তে চিবিয়ে খান। এভাবে খাবার খেলে পেটে গ্যাস জমা অনেকাংশে কমে যাবে।

৪. ভাজাপোড়া, ফ্যাটি খাবার পেটে গ্যাস তৈরি করে। এই কারণে এ ধরনের খাবার এড়িয়ে চলুন।

৫. সোডা, বিভিন্ন ধরনের আলকোহল নিয়মিত পান করলে পেটে গ্যাস জমা হয়। এ কারণে এ ধরনের পানীয় থেকে দূরে থাকা উচিত।

৬. ধূমপানের সঙ্গে সঙ্গে প্রতিনিয়ত বাতাস পেটে ঢুকে। এ কারণে পেট ফুলে যায়, গ্যাস জমা হয়।তখন গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা বাড়ে। এ জন্য গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা এড়াতে ধূমপান পরিহার করুন।

৭. অনেকে খাবার খাওয়ার সময় অনবরত কথা বলেন। এ ধরনের অভ্যাসে খাবারের সঙ্গে সঙ্গে পেটে গ্যাস ঢোকে। এজন্য খাবার খাওয়ার সময় কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। সূত্র : বোল্ডস্কাই


ঢাকা, শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১০১৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন