সর্বশেষ
বুধবার ৩রা আশ্বিন ১৪২৬ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ইন্সপিরেশন ফর হিউম্যান ওয়েলফেয়ার সংগঠন এর আত্মপ্রকাশ

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

uuuu.jpg
বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি :

সামাজিক সচেতনতা মূলক সংগঠন ইন্সপিরেশন ফর হিউম্যান ওয়েলফেয়ার (আই এইচ ডাব্লিউ) নামক সংগঠন এর কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে। রোববার গোপালগঞ্জে অনুষ্ঠিত এক সভায় দেশের ৭ টি পাব্লিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নাসির উদ্দিনকে উপদেষ্টা করে ১৯ সদস্যের কার্যনির্বাহী  পরিষদ গঠন করা হয়।
 
বশেমুরবিপ্রবির মো নজরুল ইসলাম কে সভাপতি এবং সাবরিনা জেসমিন শান্তা কে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত ১৯ সদস্যের কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যান্যরা হলেন- সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ রাফিজ (বশেমুরবিপ্রবি), সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান (বশেমুরবিপ্রবি), সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ ইমোন(যবিপ্রবি), আইন বিষয়ক সম্পাদক শাইরাহ সুলতানা শ্রাবণ (জবি), মহিলা ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আইরিন আক্তার মিম (বশেমুরবিপ্রবি), প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক সাব্বির হোসেন সাজ্জাত (ঢাবি), সমাজকল্যাণ সম্পাদক মুজাহিদ হাসান (পাবিপ্রবি), মিডিয়া ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম (বশেমুরবিপ্রবি), অর্থ সম্পাদক ফকরুন্নেছা তন্বী সহ মোঃ সাইফুল ইসলাম, মোঃ ওয়ালিউল্লাহ, ফারহান আরফিন সুমন, আকরাম খান, নাহমেদ হাসান ও হৃদয় কুণ্ডু।

এসময় সংগঠনটির সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, 'আমরা বিশেষ করে সমাজের পিছিয়ে পড়া অনগ্রসর গ্রামীণ শিক্ষার্থী, গ্রামীণ নারী ও কৃষকদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তনে কাজ করবো বলে আমরা একটি ছাতার নিচে একতাবদ্ধ হই।'

সংগঠনটির সহ-সভাপতি শেখ রাফিজ বলেন, 'আমরা সকলে নিজ নিজ স্থান থেকে সচেতন হলে দেশে সমস্যার পরিমাণ অনেকাংশে হ্রাস পাবে বলে আমরা মনে করি তাই আমাদের কর্মকাণ্ড কে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে সকলের দোয়া কামনা করছি।'

উল্লেখ্য, সংগঠনটি সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার কাঙ্খিত পরিবর্তন করে আত্ননির্ভরশীল সুখী ও সমৃদ্ধশালী অবক্ষয়মুক্ত সমাজ গঠনে ইচ্ছুক।


ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১২৪০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন