সর্বশেষ
বুধবার ১লা কার্তিক ১৪২৬ | ১৬ অক্টোবর ২০১৯

'সাকিব-তামিমকে ছাড়া দল প্রস্তুত'

রবিবার, অক্টোবর ২১, ২০১৮

9.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। দলের দুই সেরা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালকে ছাড়াই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করতে হচ্ছে টাইগারদের।

সাকিব-তামিম, দুই সেরা খেলোয়াড়ই হাতের ইনজুরিতে ভুগছেন। তবে সাকিব-তামিমকে ছাড়া ওয়ানডে সিরিজ শুরু করতে দল প্রস্তুত বলে জানালেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম ওয়ানডের আগে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলন এমন কথাই বলেন ম্যাশ। সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির বক্তব্য তুলে ধরা হলো।

বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা মানছেন, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলা বলে উচ্চাশার বাস্তবতাটা, 'সবার প্রত্যাশা, আমরা জিতব এবং জেতার আশাই করছে সবাই। সেটা খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু আমার কাছে মনে হয়, অন্য দলের সাথে যেই চ্যালেঞ্জটা নিয়ে খেলেছি, গত এশিয়া কাপে যেভাবে খেলেছি, সেটাই থাকবে। আর ওদের প্রায় সব সিনিয়র প্লেয়াররা ফিরেছে। আমাদের শতভাগ দিয়েই খেলতে হবে। হয়তো জিতলে সবাই বলবে, এটাই হওয়ার কথা ছিল। হারলে কিন্তু ভিন্ন কথা হবে, এটাই স্বাভাবিক।'

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জেতার চ্যালেঞ্জের সঙ্গে আছে দলের অন্যতম দুই মূল ভরসাকে ছাড়াই খেলতে নামার চ্যালেঞ্জ। সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালকে ছাড়াই এশিয়া কাপে খেলার একটা অনুশীলন হয়ে গেছে বাংলাদেশের, তাদেরকে ছাড়াই দল খেলেছে ফাইনালেও। প্রত্যাশাটা সেখানে আরও বেড়ে গেছে বলে ধারণা মাশরাফির, 'এশিয়া কাপে ওদের দুইজনকে ছাড়া যেভাবে যেই ধরনের ক্রিকেট খেলে এসেছি, এরপর এই ধরনের সিরিজ খেললে এবং খারাপ হলে অনেক কথা ওঠে। ‘ব্যাক অব দ্য মাইন্ডে’ কিন্তু এই একটা কথাই চাপ সৃষ্টি করতে পারে।

'কিন্তু আমার মতে, ওই জায়গাটায় কাজ করা প্রয়োজন। জিম্বাবুয়ের কাছে এমন না যে আমরা কখনো হারিনি বা হারতে পারব না, এমন কিছু না। ওদের যেই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে, এখানে একজন যদি সেঞ্চুরি করে সেটা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের একশ হিসেবেই গণ্য হবে, কেউ যদি পাঁচ উইকেট পায় তাহলে পাঁচ উইকেটই গণ্য করা হবে। এইগুলো যেই প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই খেলি না কেন, এইগুলো করা কিন্তু কঠিন। ব্যক্তিগত পর্যায়ে নিজেকে ‘বুস্ট আপ’ করা জরুরী।

'আর আমার কথা যদি বলেন, আমি বলব আমাদের জন্য এই সিরিজটাও গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বকাপের আগে এমন ৪টি সিরিজ আছে খেলার মত, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রস্তুত হওয়ার জন্য। আর আমাদের জন্যও ভালো হয়েছে। ওরা ওদের সেরা দলটা পাঠিয়েছে।'

জিম্বাবুয়ে সেরা দলটা পাঠিয়েছে, বাংলাদেশ দলে নেই মূল দুইজন ক্রিকেটার। তবুও জিম্বাবুয়ের সঙ্গে জয় মানে 'স্বাভাবিক', আর হার মানে 'ভিন্ন কিছু'।


ঢাকা, রবিবার, অক্টোবর ২১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ১২৩৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন