সর্বশেষ
শুক্রবার ৮ই ভাদ্র ১৪২৬ | ২৩ আগস্ট ২০১৯

বার্সার ত্রাতা সুয়ারেজ

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১, ২০১৮

image-10666-1516787360-501x282.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেলেই নাকি গর্জে ওঠেন বার্সেলোনার উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইজ সুয়ারেজ। কথাটা এ মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোতে আবারো প্রমাণ করলেন তিনি। গত ২৮ অক্টোবর মেসিবিহীন বার্সেলোনা মুখোমুখি হয় রিয়াল মাদ্রিদের। ম্যাচটিতে একাই পার্থক্য গড়ে দেন উরুগুইয়ান সুপারস্টার, করেন অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক।

সুয়ারেজের হ্যাটট্রিকে মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোতে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী রিয়াল মাদ্রিদকে ৫-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে কাতালান ক্লাবটি। ওই ম্যাচের পর থেকে সর্বত্রই এখন চলছে সুয়ারেজের বন্দনা। অথচ রিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচের আগে স্বয়ং বার্সা সমর্থকরাও সুয়ারেজের সমালোচনা করেছেন। এর পেছনে অবশ্য যথেষ্ট কারণও রয়েছে।

মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোতে খেলতে নামার আগে এবারের লা লিগায় সুয়ারেজের গোল ছিল ৯ ম্যাচে ৪টি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তার পারফরমেন্স আরো হতাশাজনক। এখন পর্যন্ত ৩ ম্যাচ খেলে কোনো গোল পাননি তিনি। তবে রিয়ালের বিপক্ষে হ্যাটট্রিকের মধ্য দিয়ে আবারো ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছেন উরুগুইয়ান তারকা। রিয়ালের বিপক্ষে অবশ্য সুয়ারেজের পারফরমেন্স সব সময় দুর্দান্ত। ২০১৪ সালে কাতালান ক্লাব বার্সেলোনায় যোগ দেন এই স্ট্রাইকার। এই চার বছরে এল ক্লাসিকোতে ৯ গোল করেছেন সুয়ারেজ। যে কারণে রিয়াল-বার্সা দ্বৈরথে বাড়তি নজর থাকে তার দিকে।

লুইজ সুয়ারেজের পেশাদারি ফুটবল ক্যারিয়ারের শুরুটা উরুগুইয়ান ফুটবল ক্লাব ন্যাশিওনালের হয়ে ২০০৫ সালে। ক্লাবটিতে অবশ্য বেশিদিন খেলেননি তিনি। ২০০৬ সালে তিনি নাম লেখান ডাচ ক্লাব গ্রোনিনগানে। ক্লাবটির হয়ে ৩৪ ম্যাচে ১২ গোল করে শীর্ষস্থানীয় ক্লাবগুলোর নজর কাড়েন সুয়ারেজ।

২০০৭ সালে সুয়ারেজকে কিনে নেয় নেদারল্যান্ডসের অন্যতম সেরা ক্লাব আয়াক্স। ডাচ ক্লাবটির হয়ে ৪ মৌসুমে ১১০টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি, করেছেন ৮১ গোল। এরপর সুয়ারেজকে দলে ভিড়ানোর জন্য প্রাণপণ চেষ্টা শুরু করে ইংল্যান্ডের ক্লাবগুলো। শেষ পর্যন্ত ২০১১ সালে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলে যোগ দেন সুয়ারেজ। অলরেডদের হয়ে ৩ মৌসুমে ১৩৩টি ম্যাচ খেলা করেছেন ৮২ গোল।

সুয়ারেজের স্বপ্ন ছিল কাতালান ক্লাব বার্সেলোনায় খেলা। ২০১৪ সালে সে স্বপ্ন পূরণ হয়। ওই বছর সুয়ারেজকে কেনার জন্য লিভারপুলের কাছে প্রস্তাব পাঠায় বার্সা। সুয়ারেজের ইচ্ছে দেখে বার্সার প্রস্তাবে সাড়া দেয় অলরেডস কর্তৃপক্ষ। ফলে শেষ পর্যন্ত ২০১৪ সালে নিজের স্বপ্নের ক্লাব বার্সেলোনায় পাড়ি জমান উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার। তখন থেকেই কাতালান ক্লাবটির হয়ে খেলছেন তিনি।

ইতোমধ্যে বার্সার হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২১২টি ম্যাচ খেলে ১৫৯ গোল করেছেন বর্তমানে ৩১ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার। এর মধ্যে কেবল লা লিগায় ১৪০ ম্যাচে করেছেন ১১৭ গোল। ক্লাবের মতো জাতীয় দলের জার্সিতেও দুর্দান্ত সুয়ারেজের পারফরমেন্স। উরুগুয়ে জাতীয় দলের হয়ে ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক হয় তার। এখন পর্যন্ত উরুগুয়ের হয়ে ১০৪টি ম্যাচ খেলেছেন সুয়ারেজ, করেছেন ৫৫ গোল।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১৩১৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন