সর্বশেষ
শুক্রবার ৩০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

আজ হুমায়ূন আহমেদের ৭০তম জন্মদিন

মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৮

2.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কথার জাদুকর তিনি। বাংলা সাহিত্য অঙ্গনে ধ্রুবতারা। তার বইয়ের ভাষায় মোহিত হননি এমন বাঙালি পাঠক পাওয়া যাবে না। তিনি সবার প্রিয় হুমায়ূন আহমেদ। আজ ১৩ নভেম্বর হুমায়ূন আহমেদের ৭০তম জন্মদিন।

তরুণসমাজে জনপ্রিয়তার তুঙ্গস্পশীর্ এই সাহিত্যিক মধ্যবিত্ত জীবনের কথকতা সহজ-সরল গদ্যে তুলে ধরে পাঠককে মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছেন। তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। কিন্তু রেখে গেছেন তার সৃষ্টি সম্ভার।

১৯৪৮ সালের আজকের এই দিনে হুমায়ূন আহমেদ জন্মগ্রহণ করেন। উপন্যাস, নাটক, শিশুসাহিত্য, বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী, চলচ্চিত্র পরিচালনা থেকে শিল্প-সাহিত্যের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তিনি রেখে গেছেন নিজের প্রতিভার উজ্জ্বল স্বাক্ষর। উপন্যাসে ও নাটকে তার সৃষ্ট চরিত্রগুলোও আলোচনার বিষয়। ‘হিমু’, ‘মিসির আলী’, ‘শুভ্র’ তরুণ-তরুণীদের কাছে হয়ে ওঠেছে ভীষণ জনপ্রিয় ও অনুসরণীয়।

বিংশ শতাব্দীর বাঙালি জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিকদের মধ্যে অন্যতম তিনি। তাকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা-পরবতীর্ শ্রেষ্ঠ লেখক গণ্য করা হয়। তিনি একাধারে ঔপন্যাসিক, ছোট গল্পকার, নাট্যকার এবং গীতিকার। বলা হয় আধুনিক বাংলা কল্পবিজ্ঞান সাহিত্যের পথিকৃৎ তিনি । নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবেও তিনি সমাদৃত। তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা তিন শতাধিক।

বাংলা কথাসাহিত্যে তিনি সংলাপপ্রধান নতুন শৈলীর জনক। তার বেশ কিছু গ্রন্থ পৃথিবীর নানা ভাষায় অনূদিত হয়েছে, বেশ কিছু গ্রন্থ স্কুল-কলেজ- বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচির অন্তভুর্ক্ত। সত্তর দশকের শেষভাগে থেকে শুরু করে মৃত্যু অবধি তিনি ছিলেন বাংলা গল্প-উপন্যাসের অপ্রতিদ্ব›দ্বী কারিগর। তার সৃষ্ট হিমু এবং মিসির আলি ও শুভ্র চরিত্রগুলো বাংলাদেশের যুবক শ্রেণিকে গভীরভাবে উদ্বেলিত করেছে। বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীও তার সৃষ্টিকমের্র অন্তগর্ত।

ধরা হয় বাংলাদেশে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর জনপ্রিয়তা তিনি শুরু করেন। তার নিমির্ত চলচ্চিত্রগুলো পেছ অসামান্য দশর্কপ্রিয়তা। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভ‚ষিত হয়েছে তার চলচ্চিত্র। তবে তার টেলিভিশন নাটকগুলো ছিল সবাির্ধক জনপ্রিয়। সংখ্যায় বেশি না হলেও তার রচিত গানগুলোও সবিশেষ জনপ্রিয়তা লাভ করে।

বাংলা সাহিত্যে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি ১৯৯৪ সালে ‘একুশে পদক’ লাভ করেন। এ ছাড়া তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার (১৯৮১) ও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ (১৯৯৩ ও ১৯৯৪) আরও অসংখ্য পুরস্কার লাভ করেন।

হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন উপলক্ষে আজ সারাদিন ধরেই নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। টিভিতে প্রচারিত হবে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। দিনটি উপলক্ষে চ্যানেল আই চেতনা চত্বরে অনুষ্ঠিত হবে ‘হিমু মেলা’। নূহাশপল্লীতে থাকছে বিশেষ অনুষ্ঠান। কানাডার টরেন্টোতে চলছে হুমায়ূন আহমেদের একক বইমেলা। জন্মদিনে এই কথাশিল্পীর প্রতি রইল আমাদের শ্রদ্ধা।


ঢাকা, মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ২৬৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন