সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ১৯ নভেম্বর ২০১৯

সাজেকে জেলা পরিষদের রিসোর্ট ‘খোয়াল বুক’

শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

resort.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সাজেকে ‘খোয়াল বুক’ নামে একটি পর্যটন রিসোর্ট চালু করেছে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ। ‘খোয়াল বুক’ ত্রিপুরা ভাষা। যার বাংলা অর্থ অতিথিশালা। সাড়ে চার কোটির অধিক টাকা ব্যয়ে নির্মিত চার তলাবিশিষ্ট রিসোর্ট ভবনটি সম্প্রতি উদ্বোধন করেছেন রাঙ্গামাটি আসনে সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার।

প্রাকৃতিক নৈসর্গিক সৌন্দর্যের পাহাড়বেষ্টিত বিশাল উঁচুভূমির সাজেক যেন মেঘে ছোঁয়া। যার দূরত্ব বাঘাইছড়ি উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার। সংশ্লিষ্টদের মতে, বাংলাদেশে পর্যটনে ব্যাপক সম্ভাবনাময় সাজেকভ্যালি কাজে লাগালে হতে পারে বাংলাদেশের দার্জিলিং। সাজেকে পর্যটকদের অবকাশ যাপনে বিজিবির মারিশ্যা জোনসহ স্থানীয় উদ্যোক্তা অনেকে স্থাপন করেছেন বেশ কিছু রিসোর্ট। উন্নত মানের আরেকটি রিসোর্ট নির্মাণ করল রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ।এ পর্যন্ত সাজেকে ছোট বড় মিলে প্রায় ৮০-১০০ রিসোর্ট বা কটেজ গড়ে উঠেছে। খবর বাসস।

তাই এ সম্ভাবনা কাজে লাগাতে সরকারের পাশাপাশি সাজেকে পর্যটন জোন গঠনের জন্য এগিয়ে আসছেন বিভিন্ন উদ্যোক্তা। কিন্তু সমস্যা রয়েছে এখনও অনেক। তাছাড়া আজও গড়ে ওঠেনি উন্নত সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। প্রকট রয়েছে বিদ্যুৎ ও পানির সমস্যা। জরুরি চিকিৎসার অভাব। অথচ এমন পরিস্থিতির মধ্যেও ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে অঞ্চলটি। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সাজেকে ঘুরতে যাচ্ছেন প্রচুর মানুষ। কিন্তু পার্বত্য এলাকায় প্রবেশে কড়াকড়ির কারণে ইচ্ছা থাকলেও পাড়ি জমাতে চান না বিদেশীরা।

এ বিষয়ে দীপংকর তালুকদার এমপি বলেন, প্রকৃতির লীলায়িত নন্দনকানন সাজেক। পাহাড়ি পর্যটন কেন্দ্র সাজেকের রুইলুই নামক জায়গায় বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সম্মত রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্মিত নতুন রিসোর্ট ‘খোয়াল বুক’ ভ্রমণপিপাসু মানুষের জন্য রাঙ্গামাটির পর্যটনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। রুইলুই পাহাড়ের চুড়ায় নবনির্মিত ওই রিসোর্টে অবকাশ করে প্রকৃতির সৌন্দর্য লীলা অবগাহন করতে পারবেন দেশী-বিদেশী পর্যটকরা। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের সার্বিক জীবনমান উন্নয়নে আন্তরিক।


ঢাকা, শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৪৩৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন