সর্বশেষ
বুধবার ২৯শে কার্তিক ১৪২৬ | ১৩ নভেম্বর ২০১৯

যুক্তরাজ্যের লরিতে থাকা ৩৯ মরদেহ চীনের নাগরিকদের

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৯

12.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি লরি থেকে উদ্ধার করা ৩৯ মরদেহ চীনের নাগরিকদের বলে জানা গেছে। স্থানীয় পুলিশ এক বিবৃতিতে বলেছে, আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে লাশগুলোর মধ্যে ৮টি নারী ও ৩১টি পুরুষের মৃতদেহ রয়েছে। সবগুলো মৃতদেহ চীনা নাগরিকদের বলে ধারণা করা হচ্ছে।’ খবর বিবিসির।

এ ঘটনায় আটক হওয়া লরির চালক রবিনসনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তিনি নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের বাসিন্দা। নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের সরকারি কর্মকর্তারা ইতোমধ্যে দুটি বাসায় অভিযান চালিয়েছে। দেশটির ন্যাশনাল ক্রাইম এজেন্সি বলছে, তারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদেরকে শনাক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে লরি থেকে ৩৮ জন প্রাপ্তবয়স্ক এবং এক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
বিবিসি বলছে, গত বুধবার অ্যাসেক্সের স্থানীয় একটি শিল্পাঞ্চল থেকে লরিটি পেয়েছিল পুলিশ। ট্রেইলারটি বেলজিয়ামের বন্দর থেকে বুধবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১২টার দিকে টেমস নদীর পারফ্লিট নদীবন্দরে আসে। রাত ১টা পাঁচ মিনিটের কিছুক্ষণ পরে লরি ও ট্রেইলারটি পারফ্লিটের বন্দর ত্যাগ করে।

এরপর রাত ১টা ৩০ মিনিটের দিকে অ্যাম্বুলেন্স কর্মীরা নিকটবর্তী গ্রেইস শহরের ওয়াটারগ্লেইড শিল্প পার্ক এলাকায় ট্রেইলারটির ভিতরে মৃতদেহগুলো পাওয়া যায়।

ধারণা করা হচ্ছে, লরিটি বুলগেরিয়া থেকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করেছে। ইতোমধ্যে বুলগেরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আটক লরিটি বুলগেরিয়ায় এক আইরিশ নাগরিকের নামে নিবন্ধিত।

অভিবাসন পর্যবেক্ষকদের মতে, মর্মান্তিক এই ঘটনা লরিতে করে অন্য দেশে মানুষ পাচারকারী চক্রের ভয়াবহ চিত্রকেই সামনে নিয়ে এসেছে।

২০০০ সালে ৫৬ জন মৃত সহ ২ জীবিত চীনা অভিবাসীদের লরি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় নেদারল্যান্ডের এক চালক সাজাভোগ করছেন। এছাড়া ২০১৫ সালেও অস্ট্রিয়ার একটি সড়কে পরিত্যক্ত একটি লরির ভেতর ৭১ টি মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছিল।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৪০০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন