সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

ভোগ্য পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে বৈঠক ডেকেছে এফবিসিসিআই

মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

173.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পেঁয়াজ ও লবনসহ অন্যান্য ভোগ্যপণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন (এফবিসিসিআই) সরকার, ভোগ্যপণ্য ব্যবসায়ীসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্টদের নিয়ে আগামী ২৪ নভেম্বর বৈঠক করবে।

পেঁয়াজসহ আরো কিছু ভোগ্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে আজ লবন কেনার হিড়িক পড়ার প্রেক্ষিতে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ এই সংগঠন বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে, কোন ব্যবসায়ী যেন অতি মুনাফা লাভের আশায় অনৈতিক চর্চা না করে সেজন্য এফবিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে ভোগ্যপণ্য ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি মো সিদ্দিকুর রহমান বলেন, পেঁয়াজের মূল্য ইতোমধ্যে কমতে শুরু করেছে। আশা করি অল্প কয়েক দিনের ব্যবধানে এর মূল্য স্বাভাবিক হয়ে আসবে। তবে আজ লবণ কেনার প্রতি হিড়িক দেখা গেছে, এর পেছনে গুজব থাকতে পারে বলে তিনি মনে করছেন।

তিনি বলেন, দেশে পর্যাপ্ত লবন মজুদ থাকার পরে লবনের মূল্য বৃদ্ধির কারণ থাকতে পারে না। তাই ভোক্তাদের সতর্ক থাকতে হবে কোন গুজবে যেন তারা বিভ্রান্ত না হন।

আজ মঙ্গলবার শিল্পসচিব মো. আব্দুল হালিম বলেন, দেশে বর্তমানে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি ভোজ্যলবণ মজুত রয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের লবনচাষিদের কাছে ৪ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন এবং বিভিন্ন লবণ মিলের গুদামে ২ লাখ ৪৫ হাজার মেট্রিক টন লবণ মজুত রয়েছে।

তিনি বলেন, দেশে প্রতি মাসে ভোজ্যলবণের চাহিদা কমবেশি ১ লাখ মেট্রিক টন। অন্যদিকে, লবণের মজুত আছে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টন। সে হিসাবে লবণের কোনো ধরনের ঘাটতি বা সংকট হওয়ার প্রশ্নই উঠে না।

এদিকে, নারায়নগঞ্জ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি পরিতোষ কান্তি সাহা জানিয়েছেন, দেশে বর্তমানে লবণের কোন ঘাটতি নেই। পর্যাপ্ত পরিমাণ লবণ মজুদ আছে। তিনি বলেন,লবণের দাম বাড়ার যে আশঙ্কার খবর ছড়ানো হয়েছে,সেটি সম্পূর্ণ বানোয়াট ও গুজব। এতে বিভ্রান্ত না হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

উল্লেখ্য,দাম বেড়ে যেতে পারে এমন গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে আজ রাজধানীতে লবণ কেনার হিড়িক পড়ে যায়।


ঢাকা, মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৩২৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন