সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১৩ই আশ্বিন ১৪২৮ | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

৪০ বছরে এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি: সামন্ত লাল সেন

শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

boi_1576226904_920x515.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় বুধবারের (১১ ডিসেম্বর) অগ্নিকাণ্ডে এখন  পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) সকালে পুড়ে যাওয়ার ভয়াবহতা বোঝাতে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রধান সন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, ৪০ বছরের অভিজ্ঞতায় এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি।

সামন্ত লাল বলেন, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে আগুনে পোড়া এমন রোগীও আছে, যাদের মুখ চেনা যায় না, শ্বাসনালি খুব বাজেভাবে পুড়ে গেছে। ওখানে চিকিৎসাধীন ১০ জন রোগীর সবার ৬০ থেকে ৮০ ভাগ পুড়ে গেছে। 

তিনি আরও বলেন, ঢামেকের বার্ন ইউনিটে যারা ভর্তি আছেন তারা সম্পূর্ণ শঙ্কামুক্ত। তাদের শরীরে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ পোড়া আছে। আর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে এখন ১০ জন রোগীর কেউই শঙ্কামুক্ত নন। প্রত্যেকেই আছেন লাইফ সাপোর্টে।

তিনি বলেন, এদের মধ্যে একজন আব্দুর রাজ্জাক যার শরীরের শতভাগ পুড়ে গেছে। সে অত্যন্ত ঝুঁকিতে রয়েছে যেকোনো সময় তার অবস্থার আরো অবনতি হতে পারে। বিশ্বের কোথাও শতভাগ বার্ন বাঁচানো সাধারণত সম্ভব হয়না। আমরা চেষ্টা করছি বাকিটা সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছা। বাকি যারা রয়েছে তাদেরও শরীরের ৬০ থেকে ৮০ ভাগ পোড়া রয়েছে। প্রত্যেকেরই শ্বাসনালী পুড়ে গেছে এবং মুখমণ্ডল ও শ্বাসনালী এমনভাবে পুড়েছে যে সেটা রিকভার করা অত্যন্ত দুরূহ ব্যাপার।


ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ১১৮৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন