সর্বশেষ
শুক্রবার ১৬ই ফাল্গুন ১৪২৬ | ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অ্যালার্জির প্রাদুর্ভাব কমায় যে আট খাবার

মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৪, ২০২০

Untitled-1.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

শীতকালে ঠাণ্ডাজনিত নানাবিধ শারীরিক সমস্যা বৃদ্ধি পাওয়ার পাশপাশি বেড়ে যায় অ্যালার্জির প্রাদুর্ভাবও। এ সময়ে কোল্ড অ্যালার্জি ও ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যা দেখা যায় সবচেয়ে বেশি। যাদের শীতকালে অ্যালার্জির প্রকোপ বেড়ে যায়, খাদ্যাভ্যাসে অ্যালার্জি বিরোধী খাদ্য উপাদান রাখা হবে সবচেয়ে ভালো বুদ্ধি। অ্যালার্জির সমস্যা কমাতে ও প্রতিরোধে উপকারী এমন আটটি খাদ্য উপাদান সম্পর্কে জেনে নিন।

ব্রকলি
ক্রুসিফেরাস গোত্রের মাঝে অন্যতম স্বাস্থ্যকর শীতকালীন সবজি হলো ব্রকলি। ফুড অ্যান্ড ফাংশন নামক জার্নালে প্রকাশিত গবেষণার তথ্য মতে, ব্রকলি শরীরের দূষিত পদার্থের বিরুদ্ধে কাজ করে, যা অ্যালার্জির সমস্যা তৈরির জন্য দায়ী। প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসে ও সবজিতে ব্রকলি রাখলে অ্যালার্জির প্রাদুর্ভাবে লক্ষণীয় পরিবর্তন দেখা দেবে।

আপেল
প্রতিদিন একটি আপেল দূরে রাখবে অ্যালার্জির সমস্যাকে। অন্ততপক্ষে জার্নাল মলিকিউলসে প্রকাশিত ২০১৬ সালের গবেষণার তথ্য সেটাই বলছে। আপেলে থাকা কোয়ারসেটিন (Quersetin) হলো এক প্রকার পলিফেনল। এই উপাদানটি প্রদাহের বিরুদ্ধে কাজ করে এবং অ্যালার্জির প্রাদুর্ভাব কমিয়ে আনে। নাশতা ও হালকা খাবার হিসেবে আপেল হতে পারে প্রথম পছন্দ।

মিষ্টি আলু
সাধারণ আলুর মতো মিষ্টি আলু খাওয়ায় কোন ক্ষতি নেই। বরং এতে থাকা স্বাস্থ্যকর স্টার্চ অ্যালার্জি কমাতে ও প্রতিরোধে খুব দারুণ কার্যকরি। মূলত মিষ্টি আলুতে থাকা বেটা-ক্যারটিনের জন্য এই উপকারিতা পাওয়া সম্ভব হয় বলে জানাচ্ছে মায়ো ক্লিনিক।

হলুদ
প্রতিদিন রান্না হওয়া হরেক খাবারের মাঝে হলুদ গুঁড়া থাকেই। এই হলুদ চুপিসারে কাজ করে অ্যালার্জিকে প্রতিরোধ করতে। মলিকিউলার নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড রিসার্চের মতে হলুদ গুঁড়া অ্যালার্জির লক্ষণকে প্রশমিত করতে কাজ করে এবং অ্যালার্জি দেখা দেওয়া থেকে প্রতিরোধ করে।

চিয়া সিডস
সাম্প্রতিক চিয়া সিডস বেশ পরিচিত ও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে তার বিভিন্ন স্বাস্থ্য উপকারিতার জন্য। ২০১৭ সালের একটি গবেষণার ফল জানাচ্ছে, চিয়া সিডসের দারুণ উপকারিতার মাঝে একটি হলো- এই সুপার পাওয়ারফুল খাদ্য উপাদানটিতে রয়েছে অ্যালার্জির বিরুদ্ধে কাজ করা ওমেগা-৩। স্মুদি, সালাদ বা পুডিংয়ের সাথে খাওয়া যাবে চিয়া সিডস। অথবা শুধু পানিতে সারারাত ভিজিয়ে রেখে মধু ও লেবুর রসের সাথে পান করতে হবে।

মধু
অ্যালার্জির সমস্যাটি থেকে দূরে থাকতে মিষ্টি কিছু খেতে চান? তবে এক চা চামচ মধু খেয়ে নিন। ২০১৩ সালের গবেষণার তথ্যানুসারে খাদ্যাভ্যাসে মধু রাখার ফলে অ্যালার্জির লক্ষণ দেখা দেওয়ার সম্ভাবনাক কমে যায় প্রায় ২৭ শতাংশ পর্যন্ত।

রসুন
যারা রসুন খেতে ও খাবারে রসুনের গন্ধ পছন্দ করেন, তাদের জন্য রয়েছে সুখবর। ২০১৫ সালের গবেষণার তথ্যানুসারে, রসুন শুধু অ্যালার্জির প্রভাবকেই কমাতে কাজ করে না, অ্যালার্জি দেখা দেওয়া থেকেও প্রতিরোধ করে।

লাল আঙুর
লাল আঙুরের সুমিষ্ট স্বাদ প্রিয় সকলের। যেকোন সময়ে স্ন্যাক্স হিসেবে কয়েকটি আঙুর খেয়ে নিলে ক্ষুধাভাব দূর হবে, সাথে অ্যালার্জি থেকেও দূরে থাকা সম্ভব হবে।


ঢাকা, মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৪, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৩২০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন