সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৮ই ফাল্গুন ১৪২৬ | ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কম বয়সেই চুল পাকছে, জেনে নিন করণীয়

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৩, ২০২০

kk.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সাময়িক সমাধানের দিকে না গিয়ে ঘরে বসেই সহজে অকালে চুল পাকা থেকে রেহাই পেতে পারেন। প্রাকৃতিক উপায়ে ঘরে থাকা নানা উপাদান দিয়ে এই চিকিৎসার উপকরণ তৈরি করা সম্ভব। এই উপকরণ ব্যবহার যেমন অর্থসাশ্রয়ী ঠিক তেমনি নিরাপদ এবং পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত।

১. নারিকেল তেল এবং লেবুর রস:
চুলের যত্নে নারিকেল তেলের কোন জুড়ি নেই। পাকা চুলের হাত থেকে রেহাই পেতে হলে প্রতিদিন ৪ চা চামচ নারিকেল তেলের সাথে আড়াই চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে উক্ত মিশ্রণ চুলের গোরায় এবং মাথার চামড়ায় লাগান। দুই সপ্তাহের মধ্যেই পাকা চুল কালো হয়ে উঠবে। তার পাশাপাশি আপনার মাথার চামড়া সুস্থ থাকবে, খুশকি হবে না এবং চুলও হবে উজ্জ্বল।

২. পেঁয়াজ বাটা:
পেঁয়াজ বাটা চুল পাকা রোধের অত্যন্ত কার্যকরী অস্ত্র। পেঁয়াজ ভালোমতো বেটে নিয়ে প্রতিদিন কিছুক্ষণ মাথার চামড়ায় ও চুলে ম্যাসাজ করুন এবং শুকিয়ে ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই পাকাচুল কালো হয়ে যাবে। তবে দ্রুত ফল পাওয়ার জন্য অবশ্যই প্রতিদিন একবার করে এই উপায় অনুসরণ করতে হবে।

৩. গাজরের রস:
চুলের যত্নে গাজর বেশ কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে। গাজরের সাথে পানি, চিনি মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। গাজরের যে জুস পাওয়া যাবে, সেটি নিয়মিত পান করুন। প্রতিদিন অন্তত এক গ্লাস করে গাজরের রস পান করলেই আপনার পাকা চুলের প্রতিকার পাওয়া শুরু করবেন। শুধু চুল নয়, সেইসাথে আপনার শরীরকে সুস্থ রাখতেও এই গাজরের জুস সাহায্য করবে।

৪. আমলকী ও লেবুর রস মিশ্রণ:
চামড়ার ইনফেকশন এবং মাথার চামড়ার জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন যোগান দেয়ার ক্ষেত্রে এই দুটো ফলের জুড়ি নেই। তাই অকালে চুল পাকা রোধের জন্য আমলকীর গুঁড়া সাথে লেবুর রস মিশিয়ে প্রতিদিন ১ ঘণ্টা করে মাথার চামড়ায় ম্যাসাজ করুন। তারপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৩, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ১৫৭৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন