সর্বশেষ
সোমবার ১৬ই চৈত্র ১৪২৬ | ৩০ মার্চ ২০২০

যেসব স্বাস্থ্যঝুঁকি হতে পারে চুইংগামে

বৃহস্পতিবার, মার্চ ১২, ২০২০

r.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চুইংগাম শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে মধ্য বয়সিদের মধ্যেও অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি খাবার। বিশেষ করে শিশু ও নারীদের মধ্যে এর আসক্তি বেশি লক্ষ্য করা যায়। সুগার বা চিনিযুক্ত খাদ্য নানা কারণে অনেকে এড়িয়ে চলেন। পরিবর্তে বেছে নেন চিনিমুক্ত খাদ্য। বিশেষ করে চুইংগামের বেলায় এ প্রবণতা বেশি।

অন্যদিকে ডায়াবেটিস রোগীরা চিনিযুক্ত খাবার এড়িয়ে কৃত্রিম মিষ্টি স্বাদের খাদ্যের দিকে ঝুঁকে পড়েন। মনে করেন, চিনির খারাপ প্রভাব থেকে বুঝে দূরে থাকলেন। কিন্তু একদল বিজ্ঞানী চিনিমুক্ত খাদ্যে ব্যবহৃত ‘সরবিটল’ নামের কৃত্রিম মিষ্টি জাতীয় উপাদান সম্পর্কে আতঙ্কজনক তথ্য প্রকাশ করেছেন।

তাদের মতে, সুগারফ্রি বলে বাজারে যে সব চুইংগাম বা অন্য মিষ্টান্ন জাতীয় খাদ্য পাওয়া যায় তাতে মূলত সরবিটল বা কৃত্রিম মিষ্টি দ্রব্য ব্যবহার করা হয়। যা শরীরের ওজন হ্রাস ও ডায়রিয়ার জন্য দায়ী।

চুইংগাম চিবানোর সময় প্রচুর পরিমাণে বায়ু আমাদের শরীরে প্রবেশ করে। ফলে পেটে যন্ত্রণা, অস্বস্তি, হজমের সমস্যা সহ একাধিক পেটের রোগ দেখা দেয়। অ্যাসিডিটি এবং গ্যাসের মতো সমস্যা হওয়ার ক্ষেত্রেও চুইংগামের ভূমিকা থাকে।

চুইংগামে থাকা প্রিজারভেটিভ, আর্টিফিশিয়াল ফ্লেবার এবং মাত্রাতিরিক্ত চিনির কারণে শরীরে টক্সিক উপাদানের পরিমাণ বেড়ে যায়, যে কারণে মাথা যন্ত্রণা এবং অ্যালার্জির প্রকোপ বৃদ্ধির পাওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

চুইংগাম চিবানোর সময় যতটুকু প্রয়োজন তার থেকে বেশি কাজ করতে হয় মুখের পেশিকে। দীর্ঘসময় ধরে এমন হতে থাকলে একসময়ে গিয়ে টেম্পোরামেন্ডিবুলার জয়েন্ট ডিজঅর্ডার এ আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। এই রোগটি হলে শরীরের বিভিন্ন জয়েন্টে প্রচণ্ড যন্ত্রণা দেখা দেয়।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মার্চ ১২, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৩৪১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন