সর্বশেষ
বুধবার ১৩ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ২৭ মে ২০২০

করোনা মোকাবেলায় চীনের নার্সদের লড়াইয়ের গল্প

শুক্রবার, মার্চ ২০, ২০২০

5.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

করোনাভাইরাসে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। কিন্তু এই ভয়াবহ পরিস্থিতি সবার আগে তৈরি হয়েছিল চীনে। হঠাৎ করে অচেনা এক ভাইরাসে আক্রান্ত হয় হাজার হাজার মানুষ। কিছু বুঝে ওঠার আগেই প্রচণ্ড সংক্রমিত এই ভাইরাসের রোগীদের সেবা দিয়ে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন দেশটির নার্সরা। তাদের সেই অকল্পনীয় লড়াইয়ের গল্প তুলে ধরেছে কাতারের গণমাধ্যম আল জাজিরা। 

হাজার হাজার রোগীকে সেবা দিয়ে সুস্থ করে তুলেছেন নার্সরা। চীনে করোনাভাইরাসের সেই মহামারি এখন অনেকটাই স্থিমিত হয়েছে। শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। দেশটিতে ৩২৪৫ জন করোনা ভাইরাসে মারা গেলেও গত কয়েক দিনে এই হার অনেকটাই কমে এসেছে। গত দুইদিনে করোনার উৎপত্তিস্থল উহানে নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে। কয়েক দিনের ব্যবধানে এমন চীনের এমন সাফল্যে অবাক হয়েছে গোটা বিশ্ব। চীনের সাফল্যের পেছনে সরকারের পদক্ষেপের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল নার্স এবং চিকিত্সকদের।

করোনা মোকাবিলায় বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ যেখানে নিরাপদে থাকা, কোয়ারেন্টাইনে থাকা কিংবা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলে নিজের দায়িত্ব পালন করছে সেখানে চীনের নার্সরা রাতের পর রাত জেগে বিরামহীন সেবা দিয়ে গেছেন।অক্লান্ত পরিশ্রম আর ধৈর্যের ফলস্বরূপ তারা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার চরম ঝুঁকি থাকার পরও তারা সেবা দিতে কার্পণ্য করেননি।সামনে থেকে লড়াই করে গেছেন করোনার বিরুদ্ধে। রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে অনেক নার্স চুল কেটে ছোটো করে ফেলেছে; মাথার দুই পাশ দিয়ে চুল সেভ করে ফেলেছে। অনেক নার্সই চুল ফেলে দিয়ে পুরো ন্যাড়া হয়েছেন।একটানা দীর্ঘসময় নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিতে ডায়াপার ব্যবহার করেছেন যাতে তাদের টয়লেটে যাওয়ার সময় বেঁচে যায়। নার্সদের এই নিষ্ঠা আর দায়িত্ববোধ মানবিকতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এছাড়া অনেক নার্সই তাদের মাসিক বন্ধ রাখতে বিশেষ ধরনের ওষুধ গ্রহণ করেন। নার্স, চিকিত্সকসহ নারী কর্মীদের এমন আত্মত্যাগের ফলেই সফলতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে চীন।


ঢাকা, শুক্রবার, মার্চ ২০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৪৩৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন