সর্বশেষ
বুধবার ১৩ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ২৭ মে ২০২০

কেরানীগঞ্জে আরো চারজন করোনা রোগী শনাক্ত

বুধবার, এপ্রিল ৮, ২০২০

r.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

ঢাকার কেরানীগঞ্জে আরো চারজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এই নিয়ে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এখান আটজন। এই চারজনের মধ্যে একজনের বাড়ি কালিন্দী ইউনিয়নের বরিশুড় গ্রামে। তার নাম সুলতান মাহমুদ (৩৫) । অপর একজননের বাড়ি দক্ষিন কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের বেগুনবাড়ি এলাকায়। তার নাম আব্দুর রাজ্জাক(৮০)। বাকী দুইজনের একজনের নাম নাজমা আক্তার(৩২) এবং অন্যজনের নাম হচ্ছে সাজ্জাদ হোসেন (১৬)।তারা দুইজনেই একই পরিবারের সদস্য। তাদের বাড়ি জিনজিরা ইউনিয়নের চররঘুনাথপুর গ্রামে।

আব্দুর রাজ্জাক, নাজমা ও সাজ্জাদ হোসেন এ তিনজন কেরানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাদের নমুনা সংগ্রহ করিয়েছিলেন। শুধু সুলতান মাহমুদ নিজেই স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার নমুনা পরীক্ষা করিয়েছিলেন।

আজ বুধবার বিকেল ৩টায় ঢাকা থেকে নমুনা পরীক্ষায় তার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ফলাফল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অফিসে আসে।

এ তথ্যটি নিশ্চিত করে কেরানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মীর মোবারক হোসোইন জানান,তারা ১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠিয়েছিলেন। এদের মধ্যে তিনজনের করোনা শনাক্ত রিপোর্ট এসেছে। তাদের নমুনা সংগ্রহ পরীক্ষায় এ পর্যন্ত ছয়জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। বাকী দুইজন তারা ঢাকা থেকে নমুনা পরীক্ষা করিয়ে করোনা শনাক্ত হয়েছেন। তারা প্রতিদিনই সন্দেহভাজন মানুষের নমুনা সংগ্রহ করছেন। করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় শুভাঢ্যা পুর্বপাড়া দেওয়ান বাড়ি ও জিনিজিরা ইউনিয়নে লকডাউন চলছে।

এদিকে গত শনিবার(৫এপ্রিল) জিনজিরা মডেল টাউন এলাকায় গোলাম মোস্তফা(৬৫) নামে এক করোনা রোগে শনাক্ত হয়। পরের দিন রোববার(৬এপ্রিল) দক্ষিন কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা পুর্বপাড়া দেওয়ান বাড়ি এলাকায় মোঃ মজিবর রহমান(৬৮) নামে এক ব্যক্তি করোনা রোগে শনাক্ত হয়। একই দিন কেরানীগঞ্জ মডেল থানার জিনজিরা ইউনিয়নের জিনজিরাবাগ এলাকায় নুরে আলম ঢালী ওরফে নোমান (৩৫) একং চররঘুনাথপুর গ্রামে মো. সাহাবুদ্দিন (৪৭) নামে দুই ব্যক্তি করোনা রোগে শনাক্ত হয়।

অপরদিকে কেরানীগঞ্জে এখনো ৫৩ জন হোম কোয়ারেন্টিনে আছে। ইতিমধ্যে ১০৫ জন হোম কোয়ারেন্টিনে থেকে মুক্ত হয়েছেন।


ঢাকা, বুধবার, এপ্রিল ৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৩১৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন