সর্বশেষ
বুধবার ১৩ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ২৭ মে ২০২০

সাহস আর বিশ্বাসে হারবে করোনা: সুস্থের পর ১০৩ বছরের নারী

শুক্রবার, এপ্রিল ১০, ২০২০

1.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে। তবে এই ভাইরাসকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন অনেক বয়স্করাও। যারা করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করছেন। তেমনই একজন আডা জানুস্সো। ১০৩ বছরের এই নারী জানিয়েছেন, সাহস এবং বিশ্বাসই করোনাভাইরাসকে পরাজিত করতে পারে।

সম্প্রতি জানুস্সো বার্তা সংস্থা এপিকে ভিডিও কলে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি ভালো আছি, ভালো আছি’। ইতালির পেইডমেন্টের উত্তরাঞ্চলীয় শহর লেসোনার নিবাস থেকে ভিডিওকলে যুক্ত হন জানুস্সো। তিনি বলেন, ‘আমি টিভি দেখি এবং পত্রিকা পড়ি’। এসময় জানুস্সোর পাশে তাদের ৩৫ বছর বয়সি পারিবারিক চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন, তিনি প্রতিরক্ষামূলক গাউন পরে ছিলেন এবং জানুস্সো মাস্ক পরে ছিলেন।

এসময় তার অসুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জানুস্সো বলেন, ‘আমার অল্প জ্বর রয়েছে’। তার চিকিৎসক কারলা ফার্নো মার্চেস জানান, ‘তিনি এক সপ্তাহ ধরে বিছানায় ছিলেন। সেসময় তিনি খুব ক্লান্ত ছিলেন এবং কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছিলেন না। একদিন তিনি চোখ মেললেন এবং তার নিত্যদিনের কাজ শুরু করলেন। তিনি একাই বিছানায় উঠে বসলেন এবং বিছানা থেকে নামলেন’।অসুস্থতা থেকে মুক্তি পেতে কিসে সাহায্য করেছে? এমন প্রশ্নের জবাবে জানুস্সো বলেন, সাহস, দৃঢ়তা এবং বিশ্বাস। এই তিনটি জিনিস তাকে করোনা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করেছে। তিনি পরামর্শ দিয়েছেন করোনাকে হারাতে সাহসী হোন এবং বিশ্বাস রাখুন।ইতালিতে পাঁচ সপ্তাহ ধরে লকডাউন চলছে। এমন অবস্থায় ঘরের বাইরে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যখন বাইরে যাওয়ার অনুমতি মিলবে তখন বাইরে মন ভরে হাঁটতে চান ১০৩ বছরের জানুস্সো। আর তার নাতি-নাতনিদের ছেলেমেয়ের সঙ্গে খেলতে চান তিনি।

জানুস্সোর চিকিৎসক বলেন, ‘তিনি বৃদ্ধ কিন্তু স্বাস্থ্যবান এবং জটিল কোনো রোগে আক্রান্ত নন। আগামী ১৬ আগস্টে তিনি ১০৪ বছরে পা রাখবেন।’করোনাভাইরাস আক্রান্ত হলে মাঝারি বয়সিরা বেশিরভাগ সুস্থ হয়ে উঠছেন। তবে বয়স্করা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার পরিণাম বেশিরভাগ ক্ষেত্রে খারাপ হচ্ছে। কারণ তারা বেশিরভাগই বিভিন্ন রোগে ভুগছেন এবং শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম।
বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ইউরোপে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হওয়া ব্যক্তিদের ৯৫ শতাংশের বয়সই ৬০ বছরের উপরে। তবে ইতালিতে শতবর্ষী আরও কয়েকজন করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তারা এখন করোনাকে হারাতে বিশ্বব্যাপী অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করছেন।ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ২৭৯ জনের এবং বিশ্বে মোট মৃত্যু হয়েছে ৯৫ হাজারের বেশি মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ লাখ ছাড়িয়েছে।


ঢাকা, শুক্রবার, এপ্রিল ১০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৩৫০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন