সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২১শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ০৪ জুন ২০২০

প্রধানমন্ত্রী হয়েও ক্যাফেতে প্রবেশ করতে পারলেন না

রবিবার, মে ১৭, ২০২০

jacinda.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

নিউজিল্যান্ডের রাজধানী ওয়েলিংটনের একটি ক্যাফেতে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নকে।

করোনা ভাইরাস ঠেকানোর সবচেয়ে কার্যকরি পন্থা হলো সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা। আর এই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার নিয়মের কারণেই প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি আরডার্নকে। 

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওয়েলিংটনে অলিভ নামের ওই ক্যাফেতে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় স্বামীকে নিয়ে প্রবেশ করতে পারেননি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন।

এ বিষয়ে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নের স্বামী ক্লার্ক গেফোর্ড বলেন, তাদেরকে ওই ক্যাফে থেকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে এবং মানুষ কমে গেলে আবার যেতে বলা হয়েছে।

তবে এমন কর্মকাণ্ডে মনোঃক্ষুণ্ন হননি জাসিন্ডার স্বামী ক্লার্ক গেফোর্ড। বরং এ জন্য নিজের দায়িত্বহীনতাকে দুষছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম দেয়া একটি পোস্টে ক্লার্ক গেফোর্ড বলেন, এ জন্য আমার দায় আছে। আমি গুছালো ছিলাম না। এদিকে নিউজিল্যান্ড সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী সেখানে অন্য সাধারণের মত অপেক্ষা করেছেন ।

রেস্তোরাঁটির মালিকদের একজন বলেছেন, ঘটনার সময় দায়িত্বরত ব্যবস্থাপক প্রধানমন্ত্রী ও তার সঙ্গীকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু কয়েক মিনিট পরই একটি টেবিল খালি হলে ব্যবস্থাপক দৌড়ে বাইরে যান এবং তাদের নিয়ে আসেন। তবে এটা প্রধানমন্ত্রীর জন্য বিশেষ খাতির ছিল না। ওই মালিক জানিয়েছেন , একজন সাধারণ ভোক্তার মতোই তাকে দেখা হয়েছিল, তিনি আধা ঘণ্টার মতো আমাদের এখানে ছিলেন। তিনি খেয়েছেন, আমাদের কর্মীদের সঙ্গে হাসিমুখে কথাও বলেছেন।

নিউজিল্যান্ডে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় লকডাউন তুলে নেয়া হলেও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার নিয়ম বেশ কঠোরভাবে পালন করা হচ্ছে। নিউজিল্যান্ডে করোনা ভাইরাসে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৯৮ জন। মারা গেছেন ২১ জন।


ঢাকা, রবিবার, মে ১৭, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৩৬৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন