সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১৬ই আষাঢ় ১৪২৯ | ৩০ জুন ২০২২

বাবার ঘাতককে ক্ষমা করে ইমরুলের মহানুভবতা

বৃহস্পতিবার, মে ২৮, ২০২০

skysports-imrul-kayes-bangladesh_4465686-750x563.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ক্ষমার বিরল দৃষ্টান্ত গড়লেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার ইমরুল কায়েস। বাবার মৃত্যুর সঙ্গে জড়িতদের ক্ষমা করে তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার।

গত ১৯ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ইমরুলের বাবা বনি আমিন বিশ্বাস। এর আগে গত ২৩ মার্চ মেহেরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন বনি আমিন। মেহেরপুর-কাথুলী সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একটি শ্যালো ইঞ্জিনচালিত গাড়ি ইমরুলের বাবার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি রাস্তার ওপর ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেদিন দুপুরে মুমূর্ষু অবস্থায় হেলিকপ্টারে ঢাকা নিয়ে আসা হয়। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) রাখা হয়েছিল দীর্ঘদিন। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন ইমরুলের বাবা।

দুর্ঘটনার পর সেই ইঞ্জিনচালিত গাড়ির ড্রাইভার ও সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছিল স্থানীয় পুলিশ। কিন্তু ইমরুল তাঁর বাবার মৃত্যুর জন্য কোনো মামলা না করে দোষীদের বিনাশর্তে ক্ষমা করে দেন। পুলিশকেও অনুরোধ করেন তাদের ছেড়ে দিতে।

বুধবার রাতে ইমরুল বলেন, ‘আমি আমার বাবাকে হারিয়েছি। ওই গাড়িটি আটক করেছিল পুলিশ। ড্রাইভার, সহযোগীকেও গ্রেপ্তার করেছিল। তাদের শাস্তি হলে নিশ্চয়ই কঠিন পরিস্থিতি তৈরি হতো। তাদের পরিবারের কথা চিন্তা করেছি। চিন্তা করে দেখলাম যে, ওদের কঠিন পরিস্থিতি ফেলে আমি তো শান্তি পাবো না, আবার আমার বাবাকে ফিরে পাবো না। এসব চিন্তা করেই আসলে পুলিশকে অনুরোধ করেছি ছেড়ে দিতে। যতটুকু জানি পুলিশ রেকর্ড নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়েছে।’ -রাইজিংবিডি


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মে ২৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৩৪২৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন