সর্বশেষ
রবিবার ১৭ই কার্তিক ১৪২৭ | ০১ নভেম্বর ২০২০

বুরুন্ডির প্রেসিডেন্ট মারা গেছেন করোনায়

বুধবার, জুন ১০, ২০২০

nkurunziza.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বুরুন্ডির দীর্ঘদিনের ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট পিয়েরে নকুরুনজিজা অকস্মাৎ মারা গেছেন। তিনি ও তার স্ত্রী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে দিন কয়েক আগেই স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছিল। তবে ৫৫ বছর বয়সী নকুরুনজিজার শরীরে অসুস্থতার কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে শনিবার তাকে করুজি শহরের এক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রোববার তিনি সুস্থ হয়ে উঠেন বলেও জানা যায়। কিন্তু পরদিন অর্থাৎ সোমবার ‘খুব আশ্চর্যের সঙ্গে’ জানা যায় তার স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে গেছে এবং ওইদিন বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে চেষ্টা চালানোর পরেও তাকে বাঁচানো যায়নি। বুরুন্ডিরি এক সরকারি বিবৃতিতে এমনটিই জানানো হয়েছে।

তার কোভিড-১৯য়ে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হলে তিনিই হবেন বিশ্বের প্রথম কোনও রাষ্ট্রনায়ক যিনি এই রোগে মারা গেছেন।

বুরুন্ডিতে করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়ার প্রথম সপ্তাহগুলিতে সরকারি কর্মকর্তারা জোর দিয়ে বলেছিলেন তাদের দেশ ‘ঈশ্বরের দ্বারা সুরক্ষিত’এবং কেউ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হবে না।

বুরুন্ডি বিশ্বের গুটিকয়েক দেশের একটি যারা করোনার বিস্তার ঠেকাতে ক্রীড়া ইভেন্টগুলি নিষিদ্ধ কিংবা অন্যান্য প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অস্বীকার করেছিল।

দেশটিতে গত মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনী প্রচারণায় হাজার হাজার মানুষের সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছিল। সেসব সমাবেশে কোনও ফেস মাস্ক ব্যবহারের বালাই ছিল না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চার বিশেষজ্ঞ, যারা মহামারি ঠেকাতে সরকারের কোনও ব্যবস্থা না নেয়া সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছিলেন, গত মাসে তাদেরকে বুরুন্ডি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিকে প্রতিবেশী দেশ কেনিয়ার মিডিয়া জানিয়েছে, বুরুন্ডির প্রেসিডেন্টের স্ত্রী ডেনিস বুকমি নকুরুনজিজাকে গত ২৯ মে বিমানে করে নাইরোবির একটি শীর্ষ হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়েছিল।

সোমবার স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, করোনা আক্রান্ত প্রেসিডেন্ট নকুরুনজিজা-ও হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তবে বুরুন্ডি সরকার এই দুই রিপোর্টের কোনটি সম্পর্কেই কোনও বক্তব্য দেয়নি।

বুরুন্ডিতে মাত্র ৮৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত এবং একজনের মৃত্যু সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে ১১ লাখ জনগোষ্ঠীর এই দেশটিতে মাত্র ৩ হাজার ৮৩৮টি করোনা টেস্ট হয়েছে যা বিশ্বের সর্বনিম্ন টেস্টের হারের মধ্যে একটি। ধারণা করা হচ্ছে, বুরুন্ডিতে এই ভাইরাসে বহু লোকের মৃত্যু হয়েছে, যদিও সরকারিভাবে সেগুলো স্বীকার করা হয়নি।সূত্র: দ্য গ্লোব এন্ড মেইল


ঢাকা, বুধবার, জুন ১০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৫৩৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন