সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১২ই কার্তিক ১৪২৭ | ২৭ অক্টোবর ২০২০

সিরাজদিখানে ২০ টি বসতবাড়ী নদী গর্ভে, আশঙ্কায় শতাধিক বাড়ী

সোমবার, আগস্ট ৩, ২০২০

12_0.jpg
মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি :

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ধলেশ্বরী নদীর পানি কমার সাথে সাথে নদীর তীব্রস্রতের কারণে ভাঙ্গনের তীব্রতা বেড়েছে। গত দুই দিনে নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামের প্রায় ২০ টি বাড়ী। হুমকির মুখে আরো শতাধিক বাড়ীসহ নতুন মসজিদ এবং ইসলামপুর কামিল মাদরাসা । এতে নদী ভাঙ্গন কবলিত এলাকার মানুষ আতংকের মধ্যে রয়েছে। অনেক পরিবার তড়িঘড়ি করে তাদের ঘরবাড়ি অন্য অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছে।

আজ রবিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ধলেশ্বরী নদীর ভাঙ্গনে দিশেহারা ইসলামপুর গ্রামের মানুষ।ক্ষতিগ্রস্তরা বলেন, হঠাৎ নদীতে পানি কমে ও বাড়ায় ভাঙ্গনের মুখে পড়েছেন তারা। বসতভিটাসহ সবই নদীতে চলে গেছে। কিছুক্ষন পর পর বড় বড় পাড় ভেঙ্গে পড়ছে। অনেক পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে। ভাঙ্গনের আতঙ্কে পুরোগ্রাম।

কেয়াইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশ্রাফ আলী শেখ বলেন, নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা প্রতিদিনি বাড়ছে। নদীতে পানি কমার সাথে সাথে তীব্র স্রোতের কারণে ব্যাপক ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এ পর্যন্ত প্রায় ২০ টির মত বাড়ী নদীতে ভেঙ্গে নিয়েছে । উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান আজ সকালে ভাঙ্গনকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন । খুব দ্রুত প্রদক্ষেপ না নিলে শতাধিক বাড়ী ঘর নদীর গর্ভে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে । আমরা ব্যক্তিগত উদ্যোগে বালুর বস্তা দিয়ে ভাঙ্গনরোধের চেষ্ট করছি ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশফিকুন নাহার বলেন, বিষয়টি আমি জানি। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সাথে আমার কথা হয়েছে। তারাও আজকে ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরির্দশনে আসবেন । খুব দ্রুতগতিতে প্রশাসনের পক্ষ হতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।


ঢাকা, সোমবার, আগস্ট ৩, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৪৪১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন