সর্বশেষ
সোমবার ১১ই কার্তিক ১৪২৭ | ২৬ অক্টোবর ২০২০

বোনাপোলে পাসপোর্ট জিম্মি করে চাঁদা আদায়: ৬ প্রতারক আটক

বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০

Press.jpg
বেনাপোল প্রতিনিধি :

বেনাপোল স্থলবন্দরে পাসপোর্টধারী যাত্রীদের হয়রানি ও জোর পূর্বক টাকা আদায়ের অভিযোগে ৬ প্রতারককে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার সকালে যশোর জেলা পুলিশের কনফারেন্স রুমে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন।

তিনি জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার আব্দুল লতিফ তার নিজের বোন নুরজাহান, খালাতো বোন নাজমা খাতুন ও আলীমকে ভারতের পাঠানোর উদ্দেশ্য বেনাপোল চেকপোষ্ট‍ে গাড়ি থেকে নামার পর একজন প্রতারক তাকে সহজে ভারতে পার করে দেবে এমন প্রলোভন দেখিয়ে বেনাপোল ইমেগ্রেশন সংলগ্ন অফিসের পেছনে অবস্থিত একটি দোকান ঘরের মধ্যে তাদেরকে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে তাদেরকে কোনরূপ সেবা ও সুযোগ-সুবিধা না দিয়েই তাদের কাছে জোরপূর্বক ৩ হাজার টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে ১৪/১৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি আসে তাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে জোরপূর্বক ৩জন টাকা ছিনিয়ে নেয়।

এ ঘটনায় সংবাদ পেয়ে পোর্ট থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভিকটিমদের উদ্ধার করে। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আটক করে। পরবর্তী তাকে জিজ্ঞাসাবাদে অন্যদের নাম প্রকাশ করে । এ বিষয়ে আব্দুল লতিফ ভয় প্রদর্শন পূর্বক জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করার অপরাধে বেনাপোল পোর্ট থানায় একটি মামলা করে।

পুলিশ পরে ছয়জনকে আটক করে। আটককৃতরা হলন, বেনাপোল সাদিপুর গ্রামের মোস্তফা মোড়লের ছেলে ইয়াসিন, একই গ্রামের মোশারফ হোসেনের ছেলে জসীম উদ্দিন সর্দার, আজিজ সরদারের ছেলে পাভেল, দুর্গাপুরের আকমত আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম, একই এলাকার মৃত চাঁদ আলী সরদারের ছেলে লুলু সরদার ও সাদিপুরের আব্বাসের ছেলে মোসলেম হোসেন রকি। সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার ছাড়াও পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


ঢাকা, বুধবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // উ জ এই লেখাটি ৩২২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন