সর্বশেষ
শুক্রবার ২০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ০৪ ডিসেম্বর ২০২০

অধ্যক্ষ গোপাল কৃষ্ণ হত্যায় ৩ আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড এবং অর্থদণ্ড

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৮, ২০২০

15.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চট্টগ্রামের নাজিরহাট কলেজের অধ্যক্ষ গোপাল কৃষ্ণ মুহুরীর ১৯ বছর আগের হত্যা মামলায় তিনজনকে আমৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ভার্চ্যুয়াল আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এর আগে গত ৬ অক্টোবর (মঙ্গলবার) এ মামলায় আপিল বিভাগে শুনানি শেষে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামির সাজা সংশোধন করে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়। তিন আসামি হলেন-আলমগীর কবির, তসলিম উদ্দিন মন্টু ও মো. আজম।

২০০১ সালের ১৬ নভেম্বর অধ্যক্ষ মুহুরীকে হত্যার ঘটনায় তার স্ত্রী উমা মুহুরী বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা করেন। এই মামলায় ২০০৩ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ড, চারজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেন। অপর চারজন খালাস দেওয়া হয়।

বিচারিক আদালতের রায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামি হলেন নাছির ওরফে গিট্টু নাছির, আজম, আলমগীর কবির ওরফে বাইট্ট্যা আলমগীর ও তছলিমউদ্দিন মন্টু। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সাইফুল ইসলাম ওরফে সাইফুল, মো. শাহজাহান, মহিউদ্দিন ওরফে মহিন উদ্দিন (পলাতক) ও হাবিব খান (পলাতক)।

পরবর্তীকালে মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে পৌঁছে। পাশাপাশি আসামিরা আপিল করেন। আসামি ও বাদীপক্ষের আপিলের শুনানি শেষে ২০০৬ সালের ১৭, ১৮ ও ১৯ জুলাই হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে তিনজনের মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকে। তাঁরা হলেন আজম, আলমগীর কবির ওরফে বাইট্ট্যা আলমগীর ও তছলিমউদ্দিন মন্টু। এর আগে ২০০৫ সালের মার্চে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গিট্টু নাছির র‌্যাবের ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত হন। আসামি মহিউদ্দিন ওরফে মাইন উদ্দীন, হাবিব খান, শাজাহান এবং সাইফুল ওরফে ছোট সাইফুলসহ চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।

তবে পলাতক যাবজ্জীবন দণ্ডিত মহিউদ্দিন ওরফে মহিন উদ্দিন ও হাবিব খানের আপিল বা আবেদনের বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায়নি। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামির মধ্যে বাইট্ট্যা আলমগীর আপিল বিভাগে ২০০৮ সালে আপিল করেন। অপর দুজন তসলিম উদ্দিন মন্টু ও আজম ২০০৬ সালে জেল পিটিশন করেন। এসব আপিল খারিজ করে ৬ অক্টোবর রায় দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ।

প্রায় দুই দশক আগে চট্টগ্রামের জামাল খান রোডে অধ্যক্ষ মুহুরীর বাসায় ঢুকে অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তরা তাঁকে হত্যা করে। এই মামলায় তিন আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে এক আসামির আপিল ও দুই আসামির জেল আপিলের ওপর ৬ অক্টোবর রায় দেন আপিল বিভাগ।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৩৯২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন