সর্বশেষ
শনিবার ৮ই কার্তিক ১৪২৮ | ২৩ অক্টোবর ২০২১

ইতিহাস বিকৃত করায় অলি আহমেদের বই বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ

বুধবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২০

21.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

 

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ বীর বিক্রমের লেখা ‘রেভ্যুলেশন, মিলিটারি পারসোনেল অ্যান্ড দ্য ওয়ার অব লিবারেশন ইন বাংলাদেশ’ নামে বইটি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বইটিতে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি লেখার মাধ্যমে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে এই নির্দেশ দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

পরে শাহ মঞ্জুরুল হক বলেন, ১৭ আগস্ট একটি ইউটিউব চ্যানেলে কর্নেল অলি আহমেদের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন সাংবাদিক কনক সরওয়ার। সেখানে তিনি বলেছেন, জিয়াউর রহমান ছিলেন অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি। সেটাকে চ্যালেঞ্জ করেছি এবং ওনার বই নিষিদ্ধ করতে আবেদন করেছি। বইয়ের বিভিন্ন জায়গায় বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অনেক নেতিবাচক কথাবার্তা আছে। এছাড়া কনক সরওয়ার ইউটিউবে যেসব বিতর্কিত কনটেন্ট দিয়েছেন সেগুলোর ওপর রুল হয়েছে। এগুলো নিষ্ক্রিয় বা বন্ধ করতে আদেশ দিয়েছেন। রিট আবেদনটি দায়ের করেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ।

প্রসঙ্গত, গত ৭ সেপ্টেম্বর জিয়াউর রহমানকে স্বাধীন বাংলাদেশের ‘অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি’ হিসেবে উল্লেখ করে ইতিহাস বিকৃত করেছেন অভিযোগ এনে অলি আহমেদকে একটি আইনি নোটিশ দিয়েছিলেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ।

নোটিশে বলা হয়েছিল, অলি আহমেদ গত ১৭ আগস্ট একটি সাক্ষাৎকারে দাবি করেন, জিয়াউর রহমান ‘প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি’। অথচ সংবিধানে বঙ্গবন্ধুকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলা হয়েছে এবং সৈয়দ নজরুল ইসলাম উপ রাষ্ট্রপতি। স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত এটা নিয়ে কোনও কথা কেউ উত্থাপন করেননি। তাই তার বক্তব্য ইতিহাস বিকৃতি করেছে।

 


ঢাকা, বুধবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ১০৮০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন